করোনা জেলা প্রথম পাতা

করোনার বলি তরুণী ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট, শোকের ছায়া দমদমে।

চন্দননগরের ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট দেবদত্তা রায় (৩৮) শ্রীরামপুর শ্রমজীবী হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। দমদম লিচুবাগানের বাসিন্দা ছিলেন দেবদত্তা। গতকাল শ্রীরামপুর শ্রমজীবী কোভিড হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। সোমবার সকাল পৌনে ন’টা নাগাদ তাঁর মৃত্যু হয় বলে হাসপাতাল সূত্রে খবর। তাঁর মৃত্যুর খবরে চন্দননগর মহকুমা শাসকের দফতরে ও দমদম লিচুবাগানে শোকের ছায়া। জানা গিয়েছে, চার বছরের সন্তান ও স্বামী রয়েছেন তাঁর। কিছু দিন আগে স্বামী-স্ত্রী দুজনই

করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। প্রথমে ব্যারাকপুরে দু’জনের চিকিৎসা চলছিল। কিন্তু তার অবস্থার ক্রমশ অবনতি হতে থাকায়, এম অার বাঙুর হাসপাতালে তাকে ভর্তির চেষ্টা করা হয়। কিন্তু দেবদত্তার অবস্থা ক্রমশ খারাপ হতে থাকায় শ্রীরামপুর শ্রমিক হাসপাতালে তাকে ভর্তি করা হয়। সোমবার সকালে মৃত্যু হয় এই তরুণী ম্যাজিস্ট্রেটের। জানা গেছে, পরিযায়ী শ্রমিক যাঁরা ডানকুনিতে আসছিলেন তাঁদের থাকা খাওয়া ও রাখার ব্যবস্থা করার সম্পূর্ণ দায়িত্ব সামলেছিলেন এই তরুণী আধিকারিক। মনে করা হচ্ছে, সেখান থেকে সম্ভবত নিজেই করোনায় আক্রান্ত হন।

 

Spread the love