কলকাতা প্রথম পাতা

শোভনের জন্য অন্তহীন অপেক্ষা করবে না তৃণমূল, সাফ জানাল পার্থ

নিজস্ব প্রতিনিধি— দল কারোর জন্য অনন্তকাল অপেক্ষা করতে পারে না। বেহালার পূর্ব কেন্দ্রের বিয়াককে ছাড়াই দল ভোটের তরী পার করতে পারবে। সোমবার বেহালা পূর্বের নির্বাচনী কাজেও শোভন চট্টোপাধ্যায়কেই ছাড়াই এগোচ্ছে তৃণমূল। এদিন পার্থ চট্টোপাধ্যায় সাফ জানিয়ে দিলেন, শোভনের জন্য অন্তহীন অপেক্ষা করবে না তৃণমূল। উল্লেখ্য, শোভনের পাশের কেন্দ্র বেহালা পশ্চিমের বিধায়ক পার্থ চট্টোপাধ্যায়। পার্থবাবুকে জয়ী করতে বিধানসভায় শোভনের অবদান কোনও অংশে কম ছিল না।

সোমবার বেহালার শরৎ সদনে শোভন চট্টোপাধ্যায়কে ছাড়া বেহালায় লোকসভা নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু করে দিল তৃণমূল কংগ্রেস। এদিনের সভায় হাজির ছিলেন দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়, সুব্রত বক্সী, কলকাতা দক্ষিণের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী মালা রায় ও তৃণমূল নেতা নির্বেদ রায়। শোভনবাবু উপস্থিত না থাকলেও এদিনের বৈঠকে হাজির ছিলেন শোভনের স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়ও। বৈঠকে হাজির নেতা কর্মীদের শোভনকে ছাড়াই নির্বাচনে ঝাঁপানোর স্পষ্ট বার্তা দেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। পার্থবাবু জানিয়েছেন, বৈঠকে আমন্ত্রন জানানো হলেও শোভন চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন তিনি অসুস্থ। এ প্রসঙ্গে পার্থবাবু জানান, দলের নেতা অসুস্থ বলে তো দল অসুস্থ হয়ে পরতে পারে না।  সূত্রের খবর, কোনও তৃণমূল নেতার ফোন ধরছেন না শোভনবাবু। এমনকী প্রার্থী মালা রায় ও তাঁর স্বামী নির্বেদ রায় শোভনবাবুকে ফোন করলেও তিনি ফোন ধরেননি।

এদিনের বৈঠকে হাজির ছিলেন বেহালা পূর্ব ও পশ্চিম বিধানসভা কেন্দ্র এলাকার ২১ জন কাউন্সিলর। পার্থ বাবু জানান, এবার থেকে সংশ্লিষ্ট এলাকার তৃণমূল সভাপতিদের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করবেন রত্না চট্টোপাধ্যায়। বৈঠকের পর রত্নাদেবী জানিয়েছেন, “দলের অনুগত সৈনিক তিনি। দল যে দায়িত্ব দিয়েছে তা তিনি পালন করবেন।”

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।