জেলা প্রথম পাতা রাজ্যের খবর

আমরা চোর, তৃণমূল কংগ্রেস! মমতার জমানাতে এখনই মুচলেকা দিয়ে ছাড় পেতে হচ্ছে শাসকদলের নেতা-কর্মীদের

নিজস্ব প্রতিনিধি: এই মুহূর্তে বহু চর্চিত শাসক দলের ‘কাটমানি’ বিতর্ক নতুন মাত্রা পেল বাঁকুড়ার পাত্রসায়র থানা এলাকার হাটকৃষ্ণনগরে। সাধারণ মানুষের চাপে স্থানীয় চার তৃণমূল কর্মী কেন্দ্রীয় প্রকল্পে বাড়ি পাওয়া উপভোক্তাদের কাছ থেকে ‘কাটমানি’ নেওয়ার অভিযোগ স্বীকার করেছেন।শুধূ তাই নয় নিজেদের ‘চোর’ অভিহিত করে মুচলেকা দিয়ে তবেই তাঁরা ছাড়া পেয়েছেন।

স্থানীয় সূত্রে খবর, পাত্রসায়রের হাটকৃষ্ণনগর গ্রামের বাবু বাউড়ি, ইন্দ্রজিৎ বাউড়ি, রঘুনাথ সাঁতরা ও বিপুল বাউড়ি নামে চার তৃণমূল কর্মীকে গ্রামবাসীরা ‘কাটমানি’ নেওয়ার অভিযোগে পাকড়াও করে। তাদের আটকে রেখে শুরু হয় বিক্ষোভ। এরপরেই স্থানীয় কাঁকরডাঙা মোড়ে সবার উপস্থিতিতে সালিশি সভা বসে। সেখানে চার অভিযুক্ত ‘কাটমানি’ নেওয়ার কথা স্বীকার করলেও দলের স্থানীয় নেতৃত্বের নির্দেশে তারা এই কাজ করেছে বলে দাবি করে। পরে ওই চার অভিযুক্ত ‘আমরা চোর, তৃণমূল কংগ্রেস’ লেখা মুচলেকা দিলে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়।সরকারি প্রকল্পে বাড়ি পেয়েও ঐ চার অভিযুক্তকে পাঁচ থেকে দশ হাজার টাকা ‘কাটমানি’ দিতে হয়েছে, এই দাবি করে শেফালী বাউরী, নির্মলা বাউরীরা বলেন, ঐ টাকা আমরা ফেরৎ চাই। টাকা ফেরৎ না পাওয়া পর্যন্ত অভিযুক্তদের ছাড়া হবেনা বলেও তারা দাবি করেন। গ্রামবাসীদের একাংশের পাশাপাশি স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্বও উপভোক্তাদের দাবির প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন৷বিজেপি নেতা বাপী হাজরা বলেন, সরকারি প্রকল্পে বাড়ি পাওয়া গরীব উপভোক্তাদের ছুরি ও বন্দুকের ভয় দেখিয়ে ব্যাঙ্ক থেকে টাকা তোলার সাথে সাথেই এরা টাকা আদায় করেছে। কাটমানির টাকা ফেরতের দাবিতে তাদের আটকে রাখা হয়েছিল।

 

 

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।