গ্যাল্যারি প্রথম পাতা

আজ রথযাত্রা, দেশের পাশাপাশি রাজ্যেও চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি

বিশেষ প্রতিবেদন— সকালে পাড়ার মোড়ের ফুল দোকানে অন্য পাঁচটা দিনের থেকে আজ যেন একটু বেশিই ভিড় লক্ষ্য করা যাচ্ছে। লম্বা লাইন দিয়ে ফুল কিনছে সবাই। একটু এগিয়ে গিয়ে লক্ষ্য করলাম পাশে থাকা মুদির দোকানেও পাঁপড়, মটর কড়াই কেনার হিড়িক পড়েছে। পাড়ার পাঁচু দাদুকে দেখলাম তাঁর ছোট নাতির জন্য বাজার থেকে ছোট রথ ও ভেঁপু কিনে আনতে। দেখলাম বাজারের নামকরা মিষ্টির দোকান প্রিয়া সুইটস আজ একটু বেশি সকাল সকালই দোকান খুলে ফেলেছে। এখন তারা ব্যস্ত রয়েছে জিলিপির খামি তৈরি করতে… এমনই কিছু টুকরো টুকরো ছবি মনে করিয়ে দিচ্ছে আজ রথযাত্রা। আজকের দিনেই জগন্নাথদেব তল্পিতল্পা গুটিয়ে আটদিনের জন্য বলরাম ও সুভদ্রাকে নিয়ে আটদিনের জন্য পাড়ি দেবেন মাসির বাড়ি। আর সেই কারণে সুভদ্রা, বলরাম ও জগন্নাথদেবকে রথে চাপিয়ে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার মাধ্যমে তাদের মাসির বাড়ি পৌঁছে দেবার জন্য ভক্তদের ব্যস্ততা এখন তুঙ্গে।

রথের রশিতে টান দিতে রাস্তায় নামে ভক্তের ঢল। রথ নিয়ে কচিকাঁচাদের উন্মাদনাও কিছু কম নয়। রোদের তেজ কমার সঙ্গে সঙ্গে ছোট ছোট সুসজ্জিত রথ নিয়ে ভেঁপু বাজাতে বাজাতে খুদে ভক্তদের ঢল নামে রাস্তায়। সে আনন্দের কোনও ভাগ হবে না।

রথের নাম মনে পড়লেই সবার আগে চোখের সামনে ভেসে ওঠে ওড়িশার পুরীর রথযাত্রার ছবি। লাখো লাখো ভক্ত ও পর্যটকের সমাগম হয় সেখানে। পুরীর পাশাপাশি এই রথযাত্রা সাড়ম্বর ও জনপ্রিয়তার নিরিখে পিছিয়ে নেই বাংলার রথ। শ্রীক্ষেত্র পুরীর মতো বাংলার বিভিন্ন স্থানের রথযাত্রা প্রসিদ্ধ। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য ইসকনের রথ, মাহেশের রথ এবং মহিষাদলের রথ।

এই রথকে কেন্দ্র করে উত্তর থেকে দক্ষিণ সর্বত্র বসে মেলা। এই মেলা হয়ে ওঠে রথ উৎসবের অন্যতম আকর্ষণ। মেলার উচ্ছ্বাস ও উন্মাদনায় বাড়তি মাত্রা যোগ করে জিলিপি ভাজা, পাপড় ভাজা, নাগরদোলার দল। উৎসবের দিনগুলিতে মেলায় নানা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন ও ভোগ বিতরণ করা হয়।

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।