দেশ প্রথম পাতা লগডাউন

এবার যোগীরাজ্যে জোর করে সাফাইকর্মীকে জীবাণুনাশক খাওয়ানোয় মৃত্যু ।

আবার খবরের শিরোনামে যোগীরাজ্য। এবার জোর করে এক সাফাইকর্মীকে হ্যান্ড স্যানিটাইজার খাওয়ানোর অভিযোগ। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের রামপুরে। করোনাভাইরাসের এমন মহামারী চলাকালীন এই ঘটনায় স্বাভাবিক ভাবেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। মোতিপুরা গ্রামে সাফাইয়ের কাজ করতে গিয়েছিলেন ওই কর্মী। সেখানে তিনি জীবাণুনাশক স্প্রে করছিলেন। সেইসময় এক ব্যক্তির পায়ে জীবাণুনাশকের ছিটে লাগে।
সেখানেই কয়েকজন তাঁকে ঘিরে ধরে। চলে মারধরও। এরপর জোর করে তাঁকে খাওয়ানো হয় জীবাণুনাশক। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও তাঁকে বাঁচানো যায়নি। ঘটনায় পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ। মৃতের নাম কুনওয়ার পাল। ৪-৫ জন মিলে তাঁকে জোর করে জীবাণুনাশক খাওয়ায় এবং মারধরও করে বলে অভিযোগ।
লকডাউন ঘোষণার পর উত্তরপ্রদেশে পরিযায়ী শ্রমিকদের উপর জীবাণুনাশক স্প্রে করার ঘটনায় শোরগোল পড়েছিল। রাস্তার উপর গাদাগাদি করে শ্রমিকদের বসিয়ে স্প্রে করেছিল পুলিশ। আবার কেরলে দেখা গিয়েছিল বাইক আরোহীদের লাইন দিয়ে দাঁড় করিয়ে স্প্রে করা হচ্ছে। তখন পুলিশের অমানবিক আচরণের নিন্দায় সরব হয়েছিল গোটা দেশ।
রবিবারই কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানিয়ে দিয়েছে, মানুষের শরীরে জীবাণুনাশক ছড়িয়ে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোখা যাবে, এই ধারনার কোনও বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই। শুধু তাই নয়, এটা শারীরিক এবং মানসিকভাবেও ক্ষতিকর, জানিয়ে দিল স্বাস্থ্যমন্ত্রক। সেই পরিস্থিতিতে এবার উত্তরপ্রদেশে ফের গ্রামে এক সাফাইকর্মীকে এভাবে নারকীয় অত্যাচার করে খুনের ঘটনায় বিতর্ক শুরু হয়েছে।

Spread the love