জেলা প্রথম পাতা

ডানা ছাঁটা হল কৈলাশ বিজয়বর্গীর

  • নিজস্ব প্রতিনিধি — লোকসভা ভোটের আগে এতদিন রাজ্য বিজেপির ভারপ্রাপ্ত পর্যবেক্ষকের দায়িত্বে ছিলেন তিনি। দলের যাবতীয় সিদ্ধান্তের চূড়ান্ত ভার ছিল তাঁর কাঁধে। এবার সেই দায়িত্ব থেকে ডানাছাঁটা হল কৈলাশ বিজয়বর্গীর। লোকসভা ভোটের পর রাজ্যে ভিন দল থেকে নেতারা বিজেপিতে ভিড় বাড়াচ্ছে। আর সেখানেই আপত্তি জানিয়েছিল আরএসএস। এবার আরএসএস নেতৃত্বের আপত্তিতে শেষপর্যন্ত নড়েচড়ে বসলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। সূত্রের খবর, দলে যোগদান নিয়ে এতদিন চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার ভার ছিল রাজ্যের ভারপ্রাপ্ত পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়র হাতে। তাঁর হাত থেকে সেই দায়িত্ব কেড়ে নিয়ে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি। কমিটির তিন সদস্য হিসেবে থাকতে পারেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ, সাধারণ সম্পাদক (সংগঠন) সুব্রত চট্টোপাধ্যায় ও মুকুল রায়। প্রতিপক্ষ শিবির থেকে বিজেপিতে যোগদানে ইচ্ছুক নেতৃত্বস্থানীয় কাউকে নেওয়া হবে কি না, তা নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে ওই কমিটি। লক্ষ্যণীয় হল, কমিটির সম্ভাব্য তিন সদস্যের মধ্যে দুজন দিলীপ ঘোষ ও সুব্রত চট্টোপাধ্যায় সংঘ ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত।

সদ্যসমাপ্ত লোকসভা ভোটে রাজ্যে ভালো ফলের পরেই বিজেপিতে যোগদানের হিড়িক শুরু হয়। তৃণমূল থেকে বিধায়ক ও জনপ্রতিনিধি ভাঙিয়ে নিয়ে আসতে আদাজল খেয়ে নেমে পড়েন বঙ্গ বিজেপির ভারপ্রাপ্ত পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয় ও মুকুল রায়। কিন্তু লাভপুরের তৃণমূল বিধায়ক মণিরুল ইসলামকে দলে নেওয়া নিয়ে বিজেপির অন্দরে তীব্র ক্ষোভ দেখা দেয়। ক্ষোভ উগরে দেন আরএসএসের রাজ্য নেতৃত্বও। সংঘ নেতৃত্বের আপত্তির কথা জানতে পেরে নড়েচড়ে বসেন বিজেপির শীর্ষ নেতারা। সূত্রের খবর, গত রবিবারই বাংলার নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দিয়েছিলেন, ‘সংগঠন অবশ্যই বাড়াতে হবে। কিন্তু তার মানে এই নয় যে সাধারণ মানুষের কাছে যাদের স্বচ্ছ ভাবমূর্তি নেই, তাদের জামাই আদর করে দলে আনতে হবে। তবে নিচুতলার কর্মীদের যোগদানে কোনও বাধা নেই। কিন্তু তৃণমূলের জনপ্রতিনিধি কিংবা নেতৃত্বস্থানীয় কাউকে নেওয়ার ক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বন করতেই হবে।’রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন, এর ফলে কার্যত দলে বেনোজল ঢোকার ক্ষেত্রে কিছুটা বাঁধ দেওয়া সম্ভব হবে। পাশাপাশি দলের পুরনো নেতা-কর্মীদের ক্ষোভও কিছুটা হলে প্রশমিত করা যাবে।

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।