দেশ প্রথম পাতা লগডাউন

লকডাউনে বাড়ি ফিরতে বাইক চুরি, পরে পার্সেল করে মালিককে খোয়া যাওয়া জিনিস ফেরালো চোর।

হঠাৎ করেই লকডাউন ঘোষিত হওয়ায় দেশের নানা প্রান্তে কাজের সূত্রে অনেকেই আটকে পড়েন। পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন অবস্থায় থাকতে থাকতে বাড়ি ফেরার জন্য মরিয়া হয়ে ওঠেন তারা। এইরকম একজন তামিলনাড়ুর এক চাওয়ালা। লকডাউনের মধ্যে গ্রামের বাড়ি যাবেন বলে মোটরবাইক চুরি করেছিলেন তামিলনাড়ুর ওই চাওয়ালা। তবে সপ্তাহ দুয়েক পরে মোটরবাইকের আসল মালিককে পার্সেল করে মোটরবাইক ফিরিয়ে দিয়েছেন ওই ‘বাইক চোর’।তামিলনাড়ুর কোয়েম্বাটোরে একটি চায়ের দোকানে কাজ করতেন ওই ব্যক্তি। লকডাউনে আটকে পড়েছিলেন।

 

দীর্ঘদিন দেখা হয়নি স্ত্রী এবং ছোট্ট মেয়ের সঙ্গে। ক্রমশ লকডাউনের মেয়াদ বাড়তে থাকায় আর ধৈর্য রাখতে পারেননি ওই ব্যক্তি। নিজের মনকে না বোঝাতে পেরে ঠিক করেন যেভাবেই হোক গ্রামে পৌঁছতে হবে। এর মধ্যেই তাঁর দোকানের সামনে একদিন মোটরবাইক রাখেন স্থানীয় এক যুবক সুরেশ কুমার। আর দেরি করেননি চায়ের দোকানের ওই কর্মচারী। পরিবারের সঙ্গে দেখা হওয়ার লোভ সামলাতে না পেরে সুরেশের বাইক নিয়েই চম্পট দেন তিনি। রওনা হন নিজের গ্রামের উদ্দেশে।১৪০০ টাকা ডেলিভারি চার্জ দিয়ে তাঁকে বাইক ফিরিয়ে দিয়েছেন খোদ ‘বাইক চোর’। বাইক হাতে পেয়ে সুরেশ কুমার জানিয়েছেন চেনাজানা একজন বাইক চুরি করায় তিনি প্রথমে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। কিন্তু সমস্ত ঘটনা জানার পর এবং এভাবে তার বাইক ফিরিয়ে দেওয়ায় ওই চা’ওলাকে তিনি ক্ষমা করে দিয়েছেন।

Spread the love