কলকাতা প্রথম পাতা

নেতাজি নগরে প্রৌঢ় দম্পতির মৃত্যুকে ঘিরে ঘণীভূত হচ্ছে রহস্য

নিজস্ব প্রতিনিধি— নেতাজি নগরে এক প্রৌঢ় দম্পতির রহস্যমৃত্যু ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল৷ মঙ্গলবার সকালে দক্ষিণ কলকাতার নেতাজিনগর এলাকায় এক নিঃসন্তান বৃদ্ধ দম্পতির রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার হয়। এই ঘটনার খবরে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়ায়। মৃত দম্পতির নাম দিলীপ মুখোপাধ্যায় ও স্বপ্না মুখোপাধ্যায়৷ একটি ঘরেই উদ্ধার হয়েছে তাঁদের দেহ৷ পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, শ্বাস রোধ করে খুন করা হতে পারে ওই দম্পতিকে৷ ঘটনাস্থলে রয়েছেন গোয়েন্দা প্রধান মুরলীধর শর্মা৷ তদন্ত করছে কলকাতা পুলিশের হোমিসাইড শাখা৷ আসেন ফরেন্সিক বিশেষজ্ঞের দল। স্নিফার ডগ নিয়ে আসা হয়। শুরু হয়েছে তদন্ত। এখনও অবধি মৃত্যুর কারণ স্পষ্ট নয়।

জানা গিয়েছে, বছর ৮০-র দিলীপ মুখার্জি এবং বছর ৭২-এর স্বপ্না মুখার্জি একাই থাকতেন ওই বাড়িতে। গত পরশুও তাঁদের পাড়ায় দেখেছেন স্থানীয়রা। এরপর টানা দেড় দিন তাঁদের দেখা না মেলায় সন্দেহ হয় প্রতিবেশীদের। পুলিশে খবর দেন তাঁরাই। দরজা খোলার পরই পুলিশ দেখেন একতলায় সিড়ির সামনেই রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে স্বপ্নাদেবীর দেহ। দোতলায় লণ্ডভণ্ড ঘরের বিছানা থেকে বালিশ চাপা অবস্থায় উদ্ধার করা হয় দিলীপবাবুর দেহ। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, বহুবছর ধরেই নেতাজিনগরের এই বাড়িতেই থাকতেন নিঃসন্তান দম্পতি। কেমিক্যালের ব্যবসা ছিল তাঁদের। মাঝেমধ্যেই প্রতিবেশীদের কাছে একাকিত্বের কথা বলে দুঃখও প্রকাশ করতেন তাঁরা। সূত্রের খবর, তাঁদের বিশাল বাড়ির দিকে নজর ছিল প্রোমোটারদেরও। হামেশাই এসে ‘বিরক্ত’ করতেন একাধিক প্রোমোটার। তাহলে কি সম্পত্তির জেরেই খুন করা হয়েছে ওই দম্পতিকে? কে বা কারা এসেছিল এ দিন?

পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, রাতের অন্ধকারে দুষ্কৃতীরা বাড়িতে ঢুকে খুন করে বৃদ্ধ দম্পতিকে। লুঠের উদ্দেশে খুন নাকি নেপথ্যে কারণ প্রোমোটিং তা তদন্তের পর বোঝা যাবে। পুলিশ এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখছে।

Spread the love