দেশ প্রথম পাতা রাজনৈতিক

রাজ্যের আইনমন্ত্রী ভূপেন্দ্র সিং চুদাসামার বিধায়ক পদ বাতিল করল গুজরাত হাইকোর্ট।

ভোট গণনায় কারচুপি করেছেন ,সেই সঙ্গে করেছেন ক্ষমতার অপব্যবহার ।এই অভিযোগ জানিয়ে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিল পরাজিত প্রতিপক্ষ । দু’বছর ধরে ৭৩ টি শুনানির পর অবশেষে মঙ্গলবার রাজ্যের আইনমন্ত্রী ভূপেন্দ্র সিং চুদাসামার বিধাযক পদ বাতিল করল গুজরাত হাইকোর্ট। এই ঘটনা সামনে আসার সঙ্গে সঙ্গে চরম অস্বস্তিˆতে পড়েছে গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী বিজয রূপানির নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকার। জানা গিয়েছে , ২০১৭ সালে আহমেদাবাদ জেলার ঢোলকা বিধানসভা থেকে বিজেপি’র টিকিটে জযী হয়েছিলেন বর্ষীয়ান নেতা ভূপেন্দ্র সিং চুদাসামার। তিনি তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বদ্বী কংগ্রেসের অশ্বিনী রাঠোরকে মাত্র ৩২৭ ভোটে পরাজিত করেছিলেন। ভোট গণনার পর গুজরাত হাইকোর্টে মামলা দায়ের করে কংগ্রেসের অশ্বিনী রাঠোর অভিযোগ তোলেন, কারচুপি করে তাঁকে হারিযে দেওযা হয়েছে। বিজেপি প্রার্থীর এই দুর্নীতিতে সাহায্য করেছেন ওই কেন্দ্রের রিটার্নিং অফিসার ও ঢোলকার ডেপুটি কালেক্টর ধবল জানি। গণনার কোনও নিযম না মেনে ৪২৯ ভোট বাতিল করেছিলেন ওই আধিকারিক। সেই কারণে কংগ্রেসের অশ্বিনী রাঠোর জযী হতে পারেননি। মামলা ফাইল হওযার বেশ কয়েকমাস পর ২০১৮ সালের ১৭ ই জানুযারি আদালতে প্রথম শুনানি হয। এরপর থেকে এবছরের ১০ ই ফেব্রুযারি পর্যন্ত মোট ৭৩ বার শুনানি হয়েছে এই মামলার।

মঙ্গলবার এই মামলার রায দিতে গিযে বিচারপতি পরেশ উপাধ্যায় বিজেপি বিধাযক ভূপেন্দ্র সিং চুদাসামার এর বিধাযক পদ খারিজ করে দেন। সেই সঙ্গে ঢোলকার ডেপুটি কালেক্টর ধবল জানিকে দোষী সাব্যস্তˆ করা হয। গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী বিজয রূপানির মন্ত্রিসভার আইন ও শিক্ষা সহ একাধিক দফতরের মন্ত্রীর বিধাযক পদ খারিজ হওযার ঘটনায প্রবল অস্বস্তিˆতে বিজেপি। ভারতের রাজনীতির ইতিহাসে এই ঘটনা অন্যতম বিরল বলে মন্তব্য করেছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে এই বিজেপি বিধাযক সুপ্রিম কোর্টে যাচেছন বলে জানা যাচেছ।

Spread the love