জেলা প্রথম পাতা রাজ্যের খবর

রাত পোহাতেই মুকুলকে ধাক্কা তৃণমূলের! ফের কাঁচড়াপাড়ার ৫ কাউন্সিলারকে বিজেপির ঘর থেকে ছিনিয়ে নিল ‘বালু-ববিরা’

নিজস্ব প্রতিনিধি:  হালিশহরের পর এবার কাঁচড়াপাড়া পুরসভার দিকেই নজর তৃণমূলের।বুধবার ব্যারাকপুর লোকসভার হালিশহর পুরসভা বিজেপির কাছ থেকে ছিনিয়ে নিয়ে ফের নিজেদের দখলে নিয়েছে শাসক শিবির। তবে নানা মহলে শোনা যাচ্ছে, খাস মুকুল রায়ের গড় বলে পরিচিত হালিশহর-কাঁচড়াপাড়ায় যেভাবে থাবা বসিয়েছে তৃণমূল তাতে নিঃসন্দেহের বিজেপির কাছে তা যথেষ্ট অস্বস্তির কারণ।কিন্তু এহেন পরিস্থিতিতে কাঁচড়াপাড়া পুরসভাও পুনর্দখলের পথে আরেক ধাপ এগোল তৃণমূল৷ বুধবার সন্ধেয় দিল্লি থেকে ফিরেই কাঁচরাপাড়ার বিজেপি কাউন্সিলরদের জরুরী ভিত্তিতে ডেকে পাঠান মুকুলবাবু। তার পরে বলেন, কাঁচরাপাড়া নিয়ে গুজব ছড়াচ্ছে তৃণমূল।

কাঁচরাপাড়া তাদের দখলেই থাকবে। কাউন্সিলররা বেরিয়ে যাওয়ার পর হালিশহরের বেশ কিছু কাউন্সিলরকে নিয়ে বৈঠক শুরু করেন তিনি। পরে বলেন, হালিশহর পুরসভায় বিজেপি সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করলেও তৃণমূলের চেয়ারম্যান অংশুমানকে সরায়নি। অংশুমান এখন দাবি করছেন, পুরবোর্ড তৃণমূলের হয়ে গেছে।কিন্তু রাত গড়াতে না গড়াতেই উল্টো চিত্র শিল্পাঙ্চলের রাজনীতিতে। ইতিমধ্যেই ডিগবাজি খেয়েছেন হরিণঘাটার বেশ কিছু বিজেপি কাউন্সিলর, পাল্টে গিয়েছে হালিশহর পুরসভার চিত্র। এ বার কাঁচরাপাড়ার পাঁচ কাউন্সিলরকে বিজেপি থেকে ঘরে ফেরাল তৃণমূল। যদিও কাঁচরাপাড়া পুরসভার দখল এখনও বিজেপি-রই রয়েছে। কিন্তু এ ঘটনায় মুকুল রায় ফের ধাক্কা খেলেন বলে মনে করা হচ্ছে।বৃহস্পতিবার বিধানসভা চত্বরে সাংবাদিক বৈঠক করে কাঁচরাপাড়ার ওই পাঁচ কাউন্সিলরকে আনুষ্ঠানিক ভাবে দলে ফেরান পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। সেই সঙ্গে তিনি বলেন, পার্টির বস-এর কাছে নম্বর বাড়াতে লোকসভা ভোটের পর শাসক দলের কিছু কাউন্সিলরকে ভাঙানো শুরু করেছিলেন কাঁচরাপাড়ার এক নেতা। কাউকে রিভলভার ঠেকিয়ে, কারও ছেলেকে কিডন্যাপ করার ভয় দেখিয়ে কাউন্সিলরদের ভাঙানোর চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু তাঁরা বিজেপি-তে গিয়ে দেখেছে গাঁদা ফুল আর পান পরাগের গন্ধে টেকা যাচ্ছে না। তৃণমূলের মতো মুক্ত পরিবেশ আর কোথাও নেই। তাই তাঁরা ফিরে এসেছেন। ২৪ টি আসনের কাঁচরাপাড়ায় এখন তৃণমূলের আসন সংখ্যা হল ১০। ফলে এখনও বিজেপি-র বোর্ডস সেখানে টিকে থাকল ঠিকই। কিন্তু নিঃসন্দেহে চাপে পড়ে গেল গেরুয়া শিবির।এর পাশাপাশি  এ দিন তৃণমূলের শীর্ষনেতারা দাবি করেন, আরও তিন জন কাউন্সিলর তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন। তাঁরা দলে ফিরে এলে কাঁচরাপাড়া পুরসভায় ফের দখল নিতে পারবে তৃণমূল।

Spread the love