জেলা প্রথম পাতা

শেষদিনে বিজেপি প্রার্থীর মনোনয়ন নিয়ে চূড়ান্ত জটিলতা,  সরকারের অনুমতির অপেক্ষায় না থেকে নতুন প্রার্থীর খোঁজে পদ্ম শিবির

নিজস্ব প্রতিনিধি: জলপাইগুড়ির বিজেপি প্রার্থীর ভোটে দাঁড়ানো নিয়ে নতুন সমস্যা। মঙ্গলবার মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষ দিনে চূড়ান্ত নাটকীয়তা। জলপাইগুড়ি লোকসভা কেন্দ্রে এবার বিজেপি প্রার্থী জয়ন্ত রায়ের নাম দিল্লি থেকে ঘোষণা করা হয়েছে। তিনি পেশায় সরকারি চিকিৎসক। তা নিয়েই তৈরি হয়েছে নতুন জটিলতা।সোমবার মনোনয়ন জমা দেন বিজেপি প্রার্থী পেশায় চিকিৎসক জয়ন্ত রায়। আর এখানেই নিয়ম গুলিয়ে ফেলার ঘটনা ঘটিয়েছে গেরুয়া শিবির। আগে নিয়ম ছিল, সরকারি চাকরিজীবী কেউ যদি ভোটে জেতেন তাহলে তাঁকে চাকরি থেকে ইস্তফা দিতে হবে। কিন্তু কমিশন সেই নিয়ম বদল করেছে। নতুন নিয়মানুযায়ী, সরকারি চাকরিজীবী হলে মনোনয়ন জমা দেওয়ার আগেই তাঁকে ইস্তফা দিতে হবে।

এই কারণেই সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসক জয়ন্ত রায়ের ইস্তফা দিতে দেরি হয়। মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত সেই ইস্তফা গৃহীত হয়েছে কি না, সে  ব্যাপারে সঠিক কোনও তথ্যই নেই জলপাইগুড়ি জেলা বিজেপি নেতৃত্বের কাছে। তাই বিকল্প হিসেবে অন্য প্রার্থীকে মনোনয়ন জমা দেওয়ার তোড়জোড় শুরু করেছে বিজেপি।এদিকে, মঙ্গলবারই মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন। জয়ন্ত রায়ের মনোনয়ন জমা দেওয়া ও প্রার্থী পদ থাকবে কিনা, তা নিয়ে জটিলতা তৈরি হয়েছে। কারণ পদত্যাগের পর কোনও শংসাপত্র তিনি এখনও হাতে পাননি। এদিন জলপাইগুড়িতে জয়ন্ত রায়ের পাশাপাশি মনোনয়নপত্র জমা দেন আরও দুজন। সূত্রের খবর, তাঁদের একজন স্থানীয় বাসিন্দা অপর জন প্রাক্তন কর্নেল। বিজেপি জানিয়েছে, যদি স্কুটিনির পর জয়ন্ত রায়ের মনোনয়নপত্র গ্রহণ করা হয়, তাহলে তিনিই প্রার্থী হবেন। আর তা না হলে অপর দুজনের মধ্যে একজনকে সমর্থন করবে বিজেপি।পদ্ম শিবিরের আশঙ্কা, রাজনৈতিক কারণেই রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর এই কাজে দেরি করবে। ফলে স্ক্রুটিনিতে গিয়ে আপত্তি জানালে জয়ন্ত রায়ের মনোনয়ন বাতিল হওয়া কার্যত অবধারিত। সেক্ষেত্রে তৃণমূলকে উত্তরবঙ্গের এই আসনে ওয়াক ওভার দেওয়া হবে বলেই মনে করছেন বিজেপি নেতারা।

 

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।