করোনা কলকাতা প্রথম পাতা

মাস্ক না পড়ায় ছেলেকে খুন করে থানায় আত্মসমর্পণ বাবার ।

শ্যামা পুকুর থানা এলাকায় এক বৃদ্ধ তার ছেলেকে গলায় কাপড় পেচিয়ে খুন করে থানায় আত্মসমর্পণ করেন। ওই বৃদ্ধ জানিয়েছেন, প্রতিদিনের মতোই তিনি শনিবার দিন বিকালে ছেলেকে নিয়ে বেড়াতে বেরোবেন বলে, তাকে মাক্স পড়তে বলেন। কিন্তু কোনমতেই ছেলে মাক্স পড়তে রাজি না হওয়ায়, গলায় কাপড় পেচিয়ে তাকে খুন করেন ওই বৃদ্ধ। এরপর তিনি নিজের পরিচয় দিয়ে থানায় আত্মসমর্পণ করে জানান তিনি ছেলেকে খুন করেছেন এবং ছেলের দেহ রয়েছে তারই বাড়িতে। এরপর পুলিশ গিয়ে দেহ উদ্ধার করে। পুলিশ শীর্ষেন্দুর দেহ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয় ময়না তদন্তের জন্য।

 

ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে লালবাজারের হোমিসাইড বিভাগের গোয়েন্দারা।পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ৭৮ বছরের বৃদ্ধ বংশীধর মল্লিক ছেলে শীর্ষেন্দুকে (৪৫) গলায় কাপড় পেঁচিয়ে খুন করেন। এরপর থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করেন তিনি। ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায়, মেঝেতে শীর্ষেন্দুর মৃতদেহ পড়ে রয়েছে। বিছানায় শুয়ে বৃদ্ধের পক্ষাঘাতগ্রস্ত স্ত্রী। পুলিশের অনুমান পক্ষাঘাতগ্রস্ত হয়ে ১৮ বছর ধরে বিছানায় শয্যাশায়ী স্ত্রী ও মৃগীরোগে আক্রান্ত ও মানসিক ভারসাম্যহীন ছেলের দেখভাল করতে করতে বংশীধরবাবু মানসিক অবসাদের স্বীকার হয়েছিলেন। ছেলে মাস্ক না পরে বাইরে বেরোলে যদি করোনা সংক্রমণ হয়,সেই চিন্তাও তাঁকে গ্রাস করেছিল। পুলিশের অনুমান এরফলেই এমন ঘটনা ঘটিয়েছেন ওই বৃদ্ধ।

Spread the love