দেশ প্রথম পাতা

রাজ্য চষে বেড়াবেন,কিন্তু এবারের নির্বাচনে ভোটে লড়বেন না! বিজেপিকে ঠেকাতে নির্বাচনী লড়াই থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলেন ‘মায়াবতী’

নিজস্ব সংবাদদাতা: আগামী ১১ এপ্রিল থেকে সাতদফায় দেশের ৫৪৩ আসনে লোকসভা নির্বাচন। যার মধ্যে উত্তরপ্রদেশেই ৮০টি আসনে নির্বাচন। সেখানে বিজেপিকে রুখতে অখিলেশ যাদবের সমাজবাদী পার্টি ও রাষ্ট্রীয় লোকদলের সঙ্গে জোট গড়েছিলেন মায়াবতী। ওই ৮০টি আসনের মধ্যে ৩৮টি আসনে লড়তে চলেছে তাঁর বহুজন সমাজ পার্টি। ৩৭টিতে সমাজবাদী পার্টি।এহেন পরিস্থিতিতে আসন্ন লোকসভা ভোটে আর দাঁড়াবেন না তিনি। জানিয়ে দিলেন বহুজন সমাজ পার্টি নেত্রী মায়াবতী। শেষ মুহূর্তে কেন এমন সিদ্ধান্ত, তা খোলসা করেননি মায়াবতী। তবে নিজে না লড়লেও, দলীয় প্রার্থী এবং জোটসঙ্গী সমাজবাদী প্রার্থীর হয়ে প্রচার চালিয়ে যাবেন বলে জানান তিনি।

বুধবার লখনউতে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হন মায়াবতী। সেখানেই নিজের সিদ্ধান্তের কথা জানান। তিনি বলেন, ‘‘চাইলেই লোকসভা নির্বাচনে জিততে পারি আমি। তবে এই মুহূর্তে বিজেপির বিরুদ্ধে দলের অবস্থান বেশ মজবুত। তাই না লড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। দল আমার সিদ্ধান্তকে সম্মান জানাবে বলে নিশ্চিত আমি। পরে প্রয়োজন পড়লে যে কোনও আসন খালি করে ভোটে দাঁড়াতে পারি।’’ আড়াই দশক পর উত্তরপ্রদেশের মাটিতে জোট বেঁধেছে হাতি আর সাইকেল। উত্তরপ্রদেশের গত কয়েকটি উপনির্বাচন থেকেই ইঙ্গিত মিলেছিল, এ বার জোট হতে পারে দুই দলের। হয়েছেও তাই। বুয়া-বাবুয়া এক হয়ে পণ করেছেন, দেশের সবচেয়ে বড় রাজ্য থেকে বিজেপি-কে হঠাবেন।  পর্যবেক্ষকদের মতে, অখিলেশের পর মায়াবতীর ভোটে না লড়ার সিদ্ধান্ত রাজনৈতিক ভাবে তাৎপর্যপূর্ণ। অনেকের মতে, কোনও একটি কেন্দ্রে ভোটে দাঁড়ালে মাথায় নিজের জেতা হারার চিন্তা থেকে যায়। এ ক্ষেত্রে দুই নেতাই ঝারা হাত পায়ে গোটা রাজ্যের ৮০টি আসনেই ছুটে বেড়াতে পারবেন।

 

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।