দেশ প্রথম পাতা শিক্ষা

একসঙ্গে ২৫ টি স্কুলের শিক্ষিকা, বেতন তুলেছেন ১ কোটি, শুরু তদন্ত ।

উত্তরপ্রদেশ রাজ্যের সব শিক্ষক-শিক্ষিকাদের ডেটাবেস তৈরি করছে যোগী আদিত্যনাথ সরকার। আর ওই ডেটাবেস তৈরি করতে গিয়েই চোখ কপালে উঠেছে যোগী সরকারের। কেননা অনামিকা শুক্লা নামে এক শিক্ষিকা বুনিয়াদি শিক্ষা দফতরের অধীনে কস্তুরবা গান্ধী বালিকা বিদ্যালয়ে হিসেবে যুক্ত থাকলেও, তিনি আরও ২৪ টি স্কুলে চাকরি করেন। আর এক বছরে বেতন তুলেছেন ১ কোটি টাকা। জানা গিয়েছে, অমেঠী, আম্বেদকর নগর, রায়বরেলি, প্রয়াগরাজ, আলিগড় প্রভৃতি জেলায় বিভিন্ন স্কুলে শিক্ষিকা হিসেবে নাম রয়েছে অনামিকা শুক্লার। এই বছর ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত প্রতিটি স্কুলে শিক্ষকতার বেতন তিনি তুলেছেন। ফেব্রুয়ারি মাসের পর থেকে অবশ্য ওই শিক্ষিকার হদিশ নেই। কস্তুরবা গান্ধী বালিকা

বিদ্যালয়ের তরফে জানানো হয়েছে, স্কুল থেকে মেডিক্যাল কারণ দেখিয়ে ছুটি নিয়েছিলেন তিনি। এখনও যোগ দেননি। বুনিয়াদি শিক্ষা দফতরের তথ্য অনুযায়ী, অনামিকা মইনপুর জেলার বাসিন্দা। এই ঘটনা জানাজানির পরে দফতরের তরফে তাঁর ঠিকানায় একটি নোটিসও পাঠানো হয়েছে। কিন্তু কোনও জবাব পাওয়া যায়নি। বর্তমানে অবশ্য তাঁর বেতন আটকে দেওয়া হয়েছে। শিক্ষা দফতর জানার চেষ্টা করছে প্রতিটি স্কুল থেকে বেতন তোলার জন্য একই ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ওই শিক্ষিকা ব্যবহার করেছেন, নাকি আলাদা আলাদা অ্যাকাউন্টে টাকা তুলেছেন তিনি। ইতিমধ্যেই ওই শিক্ষিকার বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু হয়েছে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে কঠোর শাস্তি মিলতে পারে বলে মনে করছেন শিক্ষক মহল।

Spread the love