দেশ প্রথম পাতা বিনোদন

অসুস্থ অভিনেতা আশিষ রায়।কিডনি প্রতিস্থাপন প্রয়োজন তাঁর।

অসুস্থ অভিনেতা আশিষ রায়।কিডনি প্রতিস্থাপন প্রয়োজন তাঁর, কিন্তু লকডাউনের পরিস্থিতিতে এতো টাকা তাঁর কাছে নেই।সম্প্রতি মুম্বাইয়ের বেসরকারি হাসপাতাল থেকে দু লক্ষের মতো বিল মিটিয়ে বাড়িতে চলে এসেছেন তিনি।কারণ হাসপাতালে থেকে চিকিৎসা খরচ বহন করা তাঁর পক্ষে অসম্ভব। এদিকে বাড়িতে থাকলেও ডায়ালিসিস তাঁকে চালিয়ে যেতেই হবে।সপ্তাহে ৪ দিন ডায়ালিসিস করতে হচ্ছে তাঁর।প্রত্যেক বার দুহাজার করে খরচ হচ্ছে ডায়ালিসিস করতে।কিডনি প্রতিস্থাপন সহ ডায়ালিসিসের বিপুল খরচের অর্থ তাঁর কাছে নেই। গচ্ছিত অর্থ ও ফুরিয়ে এসেছে। তাই সংবেদনশীল মানুষের কাছে আর্থিক সাহায্যের অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, সুস্থ হলে সকলের অর্থ ফিরিয়ে দেবেন।প্রসঙ্গত সলমন খানের কাছেও সাহায্য চেয়েছেন শিল্পী, যদিও তা সলমন খান পর্যন্ত পৌঁছেছে কিনা তা নিয়ে সন্দিহান তিনি।

Please do not give into fake news about lockdown. As of now, Begin Again is in motion. @CMOMaharashtra Uddhav Thackeray ji has appealed to all citizens to ensure social distancing, so as to not get even close to a lockdown. Safety of citizens is and will be the only parameter.

— Aaditya Thackeray (@AUThackeray) June 12, 2020

সপ্তাহে ৪ দিন করে ডায়ালিসিস করতে হচ্ছে। প্রত্যেকবার ডায়ালিসিসের জন্য লাগছে ২ হাজার করে। বর্তমানে যে পরিস্থিতি, তাতে আর কয়েকদিনের মধ্যেই শেষ হয়ে যাবে গচ্ছিত অর্থ। ফলে বন্ধ করে দিতে হবে ডায়ালিসিসও। এবার এমনই আশঙ্কা দেখা দিল অভিনেতা আশিষ রায়কে নিয়ে। সম্প্রতি মুম্বইয়ের বেসকারি হাসপাতাল থেকে বাড়িতে ফেরেন আশিষ রায়। ২ লক্ষের মতো বিল মিটিয়ে তবেই বাড়িতে ফেরেন অভিনেতা। তবে হাসপাতালে আর কিছুদিন থাকলে, তা খরচ বহন করতে পারতেন না। সেই কারণেই হাসপাতাল থেকে বাড়িতে ফেরেন টেলিভিশনের এই জনপ্রিয় অভিনেতা। বাড়িতে ফেরার পর থেকে চলছে তাঁর ডায়ালিসিস। প্রত্যেকবার ডায়ালিসিসের জন্য ২ হাজার টাকা করে প্রয়োজন, তা আগেই জানান আশিষ। কিন্তু বর্তমানে তাঁর কাছে গচ্ছিত অর্থ প্রায় নেই বললেই চলে। সেই কারণে খুব শিগিগরই তাঁকে ডায়ালিসিস বন্ধ করে দিতে হবে বলেও আশঙ্কায় প্রকাশ করেন তিনি। প্রয়োজনীয় অর্থ নিয়ে যাতে তাঁর চিকিতসার জন্য সাহায্য করা হয়, সেই আবেদনও করেন মুম্বইয়ের এই বাঙালি অভিনেতা। সলমন খানের কাছেও করা হয় আবেদন। আর শেষ পর্যন্ত আর্থিক সাহায্য পেয়েছেন আশিষ রায়। শুরু হয়েছে তাঁর চিকিৎসা। তবে তিনি সুস্থ হওয়ার পর ফের কাজ শুরু করবেন। শ্যুটিং শুরু হলে, যাঁর কাছ থেকে যে সাহায্য নিয়েছেন, সব ফিরিয়ে দেবেন। এমনই জানান আশিষ। তিনি বলেন, কোনওদিন ভাবেননি এমন দিন দেখতে হবে তাঁকে। তাই যাঁরা তাঁকে সাহায্য করেছেন চিকিতসার জন্য, শ্যুটিং শুরু হলে সবার সব অর্থ তিনি ফিরিয়ে দেবেন। সম্মান নিয়ে বেঁচে থাকবেন তিনি। তাই সুস্থ হলে সব ঠিক করে দিতে পারবেন বলে আশা প্রকাশ করেন আশিষ রায়।

Spread the love