অফবীট দেশ প্রথম পাতা

মিলিন্দ সোমান, সোনম ওয়াংচুক, আরশাদ ওয়ারসি, সহ একাধিক অভিনেতা চিনা পন্য বয়কটে সামিল।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ডাকে সারা দিয়ে আত্মনির্ভরশীল ভারত গড়ে তোলার লক্ষ্যে মিলিন্দ সোনমের পর একাধিক অভিনেতা চিনা পণ্য বয়কটে সামিল হয়েছেন। যেমন লাদাখে চিনা আগ্রাসনের পাল্টা সে দেশের পণ্য বয়কটের ডাক দিয়েছেন থ্রি ইডিয়টস খ্যাত সোনম ওয়াংচুক। তাঁর ডাকে সাড়া দিয়ে টিকটক অ্যাপ থেকে ইতিমধ্যেই বিদায় নিয়েছেন অভিনেতা, মডেল মিলিন্দ সোমন। মিলিন্দ পর এবার এগিয়ে এলেন অন্যান্য তারকারাও।জুনে একটি গবেষণায় দেখা গিয়েছিল, চিনা অ্যাপে টিকটকের সবচেয়ে বেশি ব্যবহারকারী ভারতীয়রাই। ১২ কোটি মানুষ এই অ্যাপ ব্যবহার করেন ভারতে। এই ধরনের অ্যাপগুলি বাতিলের খাতায় ফেলার আহ্বান করেছেন সোনম ওয়াংচুক। লকডাউনে ২০ লক্ষ কোটির আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করে প্রধানমন্ত্রী দেশকে আত্মনির্ভর হওয়ার ডাক দিয়েছিলেন। স্বদেশি জিনিসপত্র কেনার আবেদন করেছেন মোদী। তার আগে ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ কর্মসূচিও নিয়েছে তাঁর সরকার। সেই সুরেই হিমালয়ের মাঝে সিন্ধুপারে বসে ওয়াংচুক বলেছেন,”চিনা পণ্য বয়কট করলে সে দেশের অর্থনীতির উপরে চাপ বাড়বে। এর ফলে সরকার পড়ে যাওয়ার সম্ভাবনাও রয়েছে।” শুধু বার্তা দেওয়াই নয়, এক সপ্তাহের মধ্যে চিনা মোবাইল ব্যবহার করবেন না বলেও জানিয়েছেন সোনম ওয়াংচুক। সুপার মডেল মিলিন্দ সোমন লিখেছেন, টিকটক ছাড়লাম।

#BoycottChineseProducts।চিনি পন্য বয়কট নিয়ে অভিনেতা আরশাদ ওয়ারসি বলেন, ”আমি সচেতনভাবেই চিনা পন্য ব্যবহার বন্ধ করে দিয়েছি। যেহেতু আমরা যাকিছু ব্যবহার করি, তার বেশিরভাগ পন্যই চিনা, তাই এগুলি থেকে পুরোপুরি বেরিয়ে আসতে একটু সময় লাগবে। তবে আমি নিশ্চিত একদিন আমাদের দেশ সম্পূর্ণভাবে চিইনিজ পন্য মুক্ত হয়ে উঠবে। আপনাদের সকলেরই এবিষয়ে উদ্যোগ নেওয়া উচিত।” এভাবেই একাধিক অভিনেতা অভিনেত্রী চিনা পন্য বয়কট করে প্রতিবাদে সোচ্চার হয়েছেন।

Spread the love