করোনা দেশ প্রথম পাতা

হটস্পটে ঘরে ঘরে স্ক্রিনিং, বিহারে ২৪ ঘণ্টায় ৪ জায়গায় হামলার কবলে স্বাস্থ্যকর্মীরা।

করোনার সংকটজনক পরিস্থিতিতে এখনও অজ্ঞতার অন্ধকার থেকে বেরোতে পারছে না দেশবাসী। স্বাস্থ্যকর্মীদের হয়রান করা বা তাঁদের ওপর হামলার বিক্ষিপ্ত ঘটনা ঘটেই চলেছে দেশে। এবার স্বাস্থ্যকর্মীদের উপর হামলার ঘটনা বাড়ছে বিহারে। গত ২৪ ঘণ্টায় এমন চারটি ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে দুটি ঘটনা ঘটেছে মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের শহর বিহার শরিফে। এই অবস্থায় মানুষকে শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছে সরকার।
সিওয়ান, বেগুসরাই, নালন্দা ও নওদা – এই চার জায়গায় বাড়ি বাড়ি গিয়ে স্ক্রিনিং শুরু হওয়ার পরই ঘটেছে স্বাস্থ্যকর্মীদের উপর হামলার ঘটনা। বিহারে বর্তমান ৫৩ করোনা আক্রান্তের মধ্যে ৬০ শতাংশই এই চার জেলার। সবমিলিয়ে সেখানে ৮৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তার মধ্যে সেরে উঠেছেন ৩৭ জন।

 

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক সিওয়ান ও বেগুসরাইকে করোনাভাইরাসের হটস্পট ঘোষণা করে রেড জোনের তালিকায় রেখেছে। কেন্দ্রের নির্দেশ মেনেই, একটিও যাতে করোনা পজিটিভ রোগীর থেকে রোগ না-ছড়িয়ে পড়তে পারে, সে জন্য ডোর-টু-ডোর স্ক্রিনিং-এর ব্যবস্থা করা হয়েছে। কোনও উপসর্গ না থাকলেও সবাইকেই স্ক্রিনিং-এর আওতায় আনা হয়েছে। নালন্দা ও নওয়াদাও হটস্পট হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে। স্বাস্থ্যকর্মীরা এলাকাগুলিতে স্ক্রিনিং শুরু করলে তাঁদের এলাকা ছেড়ে চলে যেতে বলছেন স্থানীয়রা। স্থানীয়দের হেনস্থার মুখেও পড়তে হচ্ছে স্বাস্থ্যকর্মীদের। বুধবার একই ঘটেছে ঔরঙ্গাবাদ ও মোতিহারিতে।
রাজ্যের প্রিন্সিপাল সেক্রেটারি মানুষকে শান্ত থাকার আর্জি জানিয়েছেন। রাজ্য পুলিশের প্রধান গুপ্তেশ্বর পাণ্ডে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, স্বাস্থ্যকর্মীদের উপর হামলা চালানো হলে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Spread the love