কলকাতা প্রথম পাতা বিনোদন

এবার রোজভ্যালি কাণ্ডে অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়কে তলব ইডির

নিজস্ব প্রতিনিধি : রোজভ্যালি তদন্তে এ বার এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট তলব করল টালিগঞ্জের দাপুটে তথা জনপ্রিয় অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়কে। আগামী ১৯ জুলাই বেলা ১২টার মধ্যে ইডির দফতরে হাজিরার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে তাঁকে। জানা গিয়েছে রোজভ্যালির বেশ কিছু বিজ্ঞাপনে কাজ করেছিলেন প্রসেনজিৎ।  উল্লেখ্য, গতকাল অর্থাৎ সোমবার ইডির দফতরে তৃণমূল নেতা মদন মিত্রকে তলব করে দফায় দফায় জেরা করা হয়েছে।

ইতিমধ্যেই পাওয়া খবর অনুযায়ী, রোজভ্যালির একাধিক অনুষ্ঠানে দেখা গিয়েছিল প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়কে। পাশাপাশি, রোজভ্যালির কর্ণধার গৌতম কুণ্ডুর সঙ্গে জাতীয় পুরস্কার পাওয়া এই  অভিনেতার ঘনিষ্ঠতা ছিল কিনা, তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এমনকী, ওই সংস্থার সঙ্গে কোনওরকম আর্থিক লেনদেনের সম্পর্ক ছিল কিনা, কেনই বা তিনি ওই অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন, সেই সম্পর্কিত যাবতীয় বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদের করা হবে তাঁকে। এদিন সমস্ত বিষয় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য অভিনেতাকে ইডির দফতরে তলব করা হয়েছে। জানা গিয়েছে, বেশ কিছুদিন আগেই প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের কাছে নোটিস পাঠানো হয় ইডির তরফে। মঙ্গলবার এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই টলিপাড়ায় বেশ জল্পনার সৃষ্টি হয়। তবে, ইডির তলবের পর অভিনেতার দিক থেকে এখনও পর্যন্ত কোনওরকম বক্তব্য শোনা যায়নি।

সম্প্রতি লোকসভা নির্বাচনের পর সারদা ও রোজভ্যালি কাণ্ড নিয়ে নড়েচড়ে বসেছে সিবিআই। সূত্রের খবর, বিগত কয়েক দিন ধরেই রোজভ্যালির কর্ণধার গৌতম কুণ্ডুকে দফায় দফায় জেরা করেছে ইডি। এরপরই  একে একে উঠে আসছে বেশ কিছু নাম। সোমবার মদন মিত্রকে ৪ ঘণ্টা ধরে দফায় দফায় জেরা করা হয়েছে।  গত সপ্তাহেই কেন্দ্রীয় গোয়েন্দাদের জেরার মুখে পড়তে হয়েছিল শিল্পী শুভাপ্রসন্নকে।

প্রসঙ্গত, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করা হয়েছে তৃণমূলের লোকসভা সাংসদ শতাব্দী রায়কেও। জানা যাচ্ছে, আগামী ১২ জুলাই  সিজিও কমপ্লেক্সে বেলা ১২ টার মধ্যে বীরভূমের দু’বারের সাংসদ শতাব্দী রায়কে ডাকা হয়েছে। তদন্তকারীরা জানতে পেরেছেন, সারদার একটি সংস্থার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর ছিলেন শতাব্দী। ওই সংস্থার সঙ্গে আর্থিক লেনদেন হয় বলে দাবি কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার। কী কারণে আর্থিক লেনদেন হয়েছে তা জানতেই তলব বলে সূত্রে খবর।

 

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।