অপরাধ দেশ প্রথম পাতা

বিস্ফোরক ভর্তি ময়দার গোলা চিবিয়ে গর্ভবতী গরুর চোয়াল উড়ে গেল।

কেরলের পর এবার হিমাচলপ্রদেশ। খাবারে মোড়া বিস্ফোরক চিবিয়ে ফেলায় চোয়াল উড়ে গেল গর্ভবতী গরুর। মালিকের দাবি, গরুটির গলাতেও গভীর ক্ষত তৈরি হয়েছে। কেরলের হাতিটি মারা গেলেও মারাত্মত জখম অবস্থায় এখনও বেঁচে রয়েছে গরুটি।
আহত গরুটির মালিক গুরদয়াল সিং একটি ভিডিয়ো তৈরি করে তা সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার করছেন এবাং প্রশাসনের কাছে ওই নৃশংস ঘটনার বিচার চাইছেন। সংবাদমাধ্যমের খবর, বিস্ফোরণের ফলে গরুটির চোয়াল তো বটেই গলার একাংশেও বিশাল ক্ষত তৈরি হয়েছে।
গুরদয়াল সিংয়ের দাবি, ওই ঘটনার জন্য তাঁর প্রতিবেশী নন্দলাল দায়ী। তার জমিতে প্রায়ই গরুটি চলে যেত। ঘটনার পর থেকেই নন্দলাল বেপাত্তা। ময়দার ভেতরে বিস্ফোরক ভরে তা জমিতে ফেলে রেখে আসা হয়। সেটাই খেয়ে ফেলে গরুটি।

গর্ভবতী হাতি হত্যার তীব্র প্রতিবাদ জানালেন রতন টাটা ।

পুলিসের বক্তব্য, ময়দার মধ্যে বিস্ফোরক ভরে একটি আলু বোম বানানো হয়েছিল। সেটি গরুটির মুখের মধ্যে ফেটে যায়। ঘটনাটি ঘটে গত ২৬ মে। ওই ঘটনায় এটি এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। গরুরটি মালিক অভিযোগ করেছেন, তার প্রতিবেশীই ওই কাজ করেছে। এর জন্য তার কোনও আক্ষেপও নেই।
উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগেই কেরলের মল্লপুরমে একটি গর্ভবতী হাতি বিস্ফোরকভরা একটি আনারস খেয়ে ফেলে। সেই বিস্ফোরক ফেটে গিয়ে তার মুখ ও গলার গভীর ক্ষত তৈরি হয়ে যায়। টানা ১৪ দিন না খেয়ে, যন্ত্রণয় ছটফট করতে করতে মারা যায় হাতিটি। ওই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

 

Spread the love