করোনা দেশ প্রথম পাতা

পিপিই কিট আমিল, দিল্লিতে প্রতি ২৫ জন করোনা আক্রান্তের ১ জন ডাক্তার-স্বাস্থ্যকর্মী।

শনিবারই দিল্লিতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছে। অরবিন্দ কেজরিওয়াল সরকারের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, শনিবার রাতেই দেশের রাজধানী শহরে করোনা আক্রান্ত বেড়ে হয়েছে ১ হাজার ৬৯। শনিবার গোটা দিনে ১৬৬টি করোনা পজিটিভ কেস ধরা পড়ে। গত ৫ এপ্রিল দিল্লিতে করোনা আক্রান্ত ৫০০ পেরিয়েছিল। এই ছ-দিনে আক্রান্তের সংখ্যাটা পুরো দ্বিগুণ হয়। আর এর মধ্যেই মারাত্মক তথ্য সামনে এসেছে, রাজধানী দিল্লির প্রতি ২৫ জন করোনা আক্রান্তের মধ্যে একজন ডাক্তার বা স্বাস্থ্যকর্মী রয়েছেন।
স্বাস্থ্য দফতরের তথ্য অনুযায়ী, দিল্লিতে চিকিৎসক-নার্স-স্বাস্থ্যকর্মীদের অন্তত ৪২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। স্বাভাবিক কারণেই পিপিই কিটের অপ্রতুল জোগানের বিষয়টিই আবার প্রকাশ্যে চলে এসেছে।
উল্লেখ্য, দিল্লিতে ৪০০ স্বাস্থ্যকর্মী কোয়ারানটিনে রয়েছেন। এছাড়াও কেজরি সরকারের স্বাস্থ্য দফতরের করোনা রিপোর্টে জানানো হয়েছে, বিগত কয়েক দিন ধরে সরকারি উদ্যোগে ১১ হাজার ৭০৯টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। তার মধ্যে ১০ হাজার ২১৮ নমুনার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। বাকি ৪৬৪ নমুনার রিপোর্ট এখনও হাতে আসেনি।
ভারতের হাতে যে কিট রয়েছে, তা দি়য়ে পরীক্ষা করে, করোনা নমুনার রিপোর্ট হাতে পেতে কমপক্ষে ২৪ ঘণ্টা সময় লাগে। শুক্রবার রাত পর্যন্ত ১৪ জনের মৃত্যু-সহ দিল্লিতে করোনায় আক্রান্ত ছিল ৯০৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু বেড়ে হয়েছে ১৯। অর্থাৎ একদিনে ৫ জন মারা গিয়েছেন। সুস্থ হয়ে ওঠায় হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ২৬ জনকে।
আপরদিকে, গোটা দেশে এখনও পর্যন্ত সাড়ে ৮ হাজারেরও বেশি মানুষের মধ্যে সংক্রমণ ছড়িয়েছে। কিন্তু দিল্লিতে যেভাবে ডাক্তার-স্বাস্থ্যকর্মীদের মধ্যে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে, তাতে চিন্তায় বিশেষজ্ঞরা।

Spread the love