জেলা প্রথম পাতা রাজ্যের খবর

দক্ষিণ দিনাজপুরের জেলা পরিষদ ফেরাতে জেলা নেতৃত্বের সাথে বৈঠক সারলেন পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়

নিজস্ব প্রতিনিধি: সভাধিপতি সহ জেলা পরিষদের সদস্য-সদস্যাদের রাজনৈতিক দল বদলের কারনে বিগত প্রায় দুই মাসের অধিক সময় ধরে চলা দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদের অচলাবস্থা কাটাতে বালুরঘাটের সার্কিট হাউসে পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা তৃণমূল শিবিরে থাকা জেলা পরিষদের সদস্য-সদস্যাদের এবং জেলা পরিষদের আধিকারিকদের। আলোচনা সভা শেষে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদ নিয়ে রাজ্যের পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রী সুব্রত মুখার্জী বললেন আমার ধারণা এক সপ্তাহের মধ্যে পুরোনো জায়গায় ফিরে যাব। প্রসঙ্গত উল্লেখ যে চলতি বছরের বিগত মে মাসে ১৮ আসন বিশিষ্ট দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদের সভাধিপতি সহ দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদের মোট ১০ জন সদস্য-সদস্যা বিপ্লব মিত্র-র নেতৃত্বে তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপি দলে যোগদান করেন নয়া দিল্লীতে বিজেপির দলীয় কার্যালয়ে। এর পরবর্তীতেও জারি থাকে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদের সদস্য-সদস্যাদের রাজনৈতিক দল বদল।

বিজেপিতে যোগদান করা ১০ জন জেলা পরিষদের সদস্যদের মধ্যে ৪ জন সদস্য-সদস্যা ফের যোগদান করে তৃণমূলে। কিন্তু দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদের সভাধিপতি লিপিকা রায় গেরুয়া শিবিরে থাকার কারনে সংখ্যালঘিষ্ঠ হলেও রাজ্যের পঞ্চায়েত আইনকে উদ্ধৃত করে বিজেপি শিবিরের পক্ষ থেকে ঘোষণা করে দেওয়া হয় যে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদ তারা দখল করেছে। অপরদিকে আবার পঞ্চায়েত আইনের দৌলতে জেলা পরিষদের সভাধিপতির মেয়াদ আড়াই বছর অতিক্রান্ত না হওয়ায় কারনে  দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদের সভাধিপতির বিরুদ্ধে অনাস্থা আনতে না পারা তৃণমূল শিবির দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদে সংখ্যাধিক্য হওয়ার কারনে আইনি পথে এগোনোর ভাবনা শুরু করে। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদ তৃণমূলের দখলে রাখতে আসরে নামেন তৃণমূল নেতা তথা আইনজীবী শংকর চক্রবর্তী। জানা গেছে রাজনৈতিক এই টালবাহানার কারনে বিগত প্রায় দুই মাসের অধিক সময়ে শিকেয় উঠে জেলা পরিষদের কাজকর্ম, অঘোষিতভাবে তৈরী হয় অচলাবস্থা। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদের সেই অচলাবস্থা দূর করতে আইনজীবী শংকর চক্রবর্তীকে মধ্যমণি করে, বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রের প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ অর্পিতা ঘোষ এবং উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী বাচ্চু হাসদা-র উপস্থিতিতে তৃণমূল শিবিরে থাকা দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদের সদস্য-সদস্যাদের নিয়ে এবং জেলা পরিষদের আধিকারিকদের নিয়ে বালুরঘাটে সার্কিট হাউসের কনফারেন্স রুমে আলোচনা সারেন রাজ্যের পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়। আলোচনায় উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের অপর এক মন্ত্রী রাজীব ব্যানার্জী-ও। এদিনের আলোচনা পর্ব শেষে রাজ্যের পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদ নিয়ে চলতে থাকা কার্যত অঘোষিত অচলাবস্থা প্রসঙ্গে একটি প্রশ্নের জবাবে বলেন রাজনৈতিক অসুবিধা হচ্ছে না কিন্তু আইনের অসুবিধা হয়ে কিছু কাজের অসুবিধা হচ্ছে। এই প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন সংখ্যার(পড়তে হবে তৃণমূল শিবিরে থাকা দঃদিঃ জেলা পরিষদের সদস্য-সদস্যাদের সংখ্যা) অসুবিধা যেটা জেলা পরিষদে ছিল অনেক মেক আপ হয়ে গেছে, আমার মনেহয় না যে আর এক সপ্তাহ পরে কোন অসুবিধা হবে। আলোচনা শেষে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদের শিক্ষা কর্মাধ্যক্ষ প্রবীর রায় বলেন আগামী ১৫ দিনের মধ্যে একটা সুরাহা হতে পারে। তিনি বলেন যদি সেই সুরাহার রাস্তাটা পেয়ে যায় তাহলে আমরা জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে একটা ভাল উন্নয়ন দেখাতে পারব। পাশাপাশি দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদের সহ সভাধিপতি সূত্রে জানা জানা গেছে আগামী ১৫ দিন পরে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদের সদস্য-সদস্যাদের সঙ্গে ফের আবারও দেখা করতে পারেন রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রী।

Spread the love