দেশ প্রথম পাতা

পরিবারের মাত্র ২ জন! আলো-পাখা চালিয়েই বিদ্যুতের বিল ১২৮ কোটি টাকা! অবাক বৃদ্ধ

নিজস্ব প্রতিনিধি : টানাটানির সংসার৷ দুবেলা দুমুঠো পেটভরা খাবার জোটাই দায়৷ ঘরে বিদ্যুৎ সংযোগ রয়েছে৷ খুব বেশি হলে ৮০০ টাকা বিদ্যুতের বিল আসে প্রতি মাসে। এ বার এসেছে ১২৮ কোটি টাকা। সঠিক ভাবে বলতে গেলে ১২৮ কোটি ৪৫ লক্ষ ৯৫ হাজার ৪৪৪ টাকা! বিপুল অঙ্কের বিল মেটাতে না পারায় লাইন কেটে দেওয়া হয়েছে৷ বিপুল অঙ্কের ওই বিদ্যুত্ বিল সংশোধন করতে গিয়ে ঘেমে গিয়েছেন বছর ষাটের ওই বৃদ্ধ। কিন্তু বিল ঠিক করা তে দূরের কথা শামিমের বাড়ির সংযোগ কেটে দিয়েছেন বিদ্যুত্ দফতরের কর্মীরা।

সংবাদসংস্থায় খবর অনুযায়ী শামিমকে বিল দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন, এখন কেউ আমার কথা শুনছেন না। এত টাকা দেব কী করে। যখন এনিয়ে অভিযোগ করতে গেলাম তখন কেটে দেওয়া হল বাড়ির বিদ্যুত্ সংযোগ। বলা হল যতক্ষণ পর্যন্ত ওই টাকা দিই ততক্ষণ সংযোগ জোড়া হবে না।

পরিবারে রয়েছেন একমাত্র স্ত্রী। তাতেই ওই বিপুল টাকার বিল। সংবাদসংস্থাকে শামিম বলেন, মনে হচ্ছে গোটা হাপুরের বিল চাপিয়ে দেওয়া হয়েছে আমার ওপরে। আমাদের ঘরে একটি মাত্র ফ্যান চলে। আর কয়েকটি আলো। তাতে এত বিল আসে কী করে!

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে শামিম জানিয়েছেন, তাঁদের বাড়িতে ২ কিলোওয়াটের বিদ্যুৎ সংযোগ রয়েছে। আলো-পাখা মিলিয়ে প্রতি মাসে ৭০০ টাকার মতো বিল আসে। কিন্তু সম্প্রতি বিল হাতে পেয়ে চোখ কপালে ওঠে তাঁর। তাতে ১২৮ কোটি ৪৫ লক্ষ ৯৫ হাজার ৪৪৪ টাকা মেটাতে বলা হয়।

Spread the love