কলকাতা প্রথম পাতা

বিজেপির সদস্য হলেন মমতা-রাহুল! সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া ছবি দেখে শিক্ষামন্ত্রীর জবাব, ‘কাউকে রেহাত নয়’

নিজস্ব প্রতিনিধি: বিজেপির সদস্য হলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী! হ্যাঁ,শুনতে একটু অবাক লাগলেও বাস্তবে দাঁড়িয়ে এই ঘটনা দেখে চোখ কপালে ওঠার জোগাড়।সোশ্যাল মিডিয়ায় কয়েকদিন ধরেই ঘোড়াফেরা করছে কয়েকটি মিম।কোনটায় দেখা যাচ্ছে ভারতীয় জনতা পার্টির সদস্য হিসাবে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আবার কোথাও দেখা যাচ্ছে প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীকে। বিজেপির নাম ও প্রতীক সমেত সেই কার্ডে কোথাও মুখ্যমন্ত্রী সহাস্য। কোথাও আবার তিনি ধরে আছেন বিজেপির দলীয় পতাকা। তাঁর ছবির সঙ্গে রয়েছে সদস্যপদের ক্রমিক সংখ্যাও । গত কয়েক দিন ফেসবুক আর হোয়াটসঅ্যাপে ঘুরছে এই ছবি। মোদি বিরোধী এই দুই নেতা-নেত্রীই যোগ দিয়েছেন বিজেপিতে৷

তাঁদের ছবি দেওয়া ই-কার্ডের ছবি ছড়িয়ে পড়েছে পুড়ে সোশ্যাল মিডিয়া জুড়েই৷ ভাইরাল কার্ডের একটিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি ও নাম রয়েছে৷ অপরটিতে মুখ্যমন্ত্রীর নামের জায়গায় লেখা ‘চৌকিদার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়’৷ আরও একটি কার্ডে রয়েছে রাহুল গান্ধীর নাম ও ছবি৷ আর এই কার্ডগুলির ছবিকে ঘিরেই সোশ্যাল মিডিয়া তৈরি হয়েছে বিতর্ক৷ কে বা কারা একাজ করেছে, সেই উৎসের সন্ধান এখনও পাওয়া যায়নি৷ তবে এই কাজের সঙ্গে বিজেপি যোগের অভিযোগে সরব হয়েছে তৃণমূল ও কংগ্রেস শিবির৷ ঘটনার নিন্দা করে উভয় পক্ষেরই দাবি, এ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ও কংগ্রেস নেতার ভাবমূর্তি খারাপ করতেই এই ফেক বা ভুয়ো ছবি ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে৷এই ঘটনায় ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। মঙ্গলবার বিধানসভায় সাংবাদিক বৈঠকে এই রসিকতার তীব্র নিন্দা করেছেন শিক্ষামন্ত্রী। পার্থবাবু জানিয়েছেন, প্রযুক্তির অপব্যবহার করে এই ধরনের ধৃষ্টতা সহ্য করা হবে না। অপরাধীদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ করা হবে।এটা ভুয়ো। দল এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে। বিজেপি ইন্টারনেট ব্যবহার করে ভুয়ো খবর ছড়াচ্ছে। কতটা নীচ হলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে এই ধরণের রটনা করা যায়।

 

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।