জেলা প্রথম পাতা রাজ্যের খবর

কাটমানি চলে গিয়েছে পার্টির কাজে! সালিশি সভায় এসে তৃণমূল নেতারা বললেন টাকা আমরা নিয়েছি, কিন্তু ক্ষমা করবেন ফেরত দিতে পারব না

নিজস্ব প্রতিনিধি: কাটমানি। এযেন একটা অসুখের নাম। তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কাটমানি ফেরত দেওয়ার কথা বলার পরেই রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে তা সংক্রমনের মতো ছড়িয়ে পড়েছে। এমনকি তৃণমূলের ঘর থেকে কাটমানি আঁচ এখন পড়তে শুরু করেছে বিজেপির অন্দরেও। রোজই প্রায় রাজ্যের কোথাও না কোথাও কাটমানির মীমাংসা চলছে। পূর্ব বর্ধমানের আউশগ্রামে। আবাস যোজনায় উপভোক্তাদের কাছ থেকে নেওয়া কাটমানি ফেরত চেয়ে সালিশি সভা ডাকা হয় আউশগ্রামের দেয়াশা গ্রামের ধর্মরাজতলায়। তার আগে স্থানীয় সিপিএম নেতা সমর ঘোষের নেতৃত্বে গোটা গ্রামে ঢ্যারা পিটিয়ে এই সালিশি সভায় ডাকা হয় গ্রামবাসীদের। সেই সালিশি সভায় এলেও হাত জোড় করে তৃণমূল নেতারা জানিয়ে দিলেন, টাকা তাঁরা নিয়েছেন ঠিক। কিন্তু দলের কাজে খরচ হয়ে গেছে তা। তাই টাকা আর ফেরত দিতে পারবেন না।দুপুরের পর আয়োজিত সালিশি সভায় ডাকা হয়েছিল স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেসের নেতাদেরও। তৃণমূল নেতা বাবলু মণ্ডল, বিনয় মণ্ডলরা সভায় এসে প্রকাশ্যেই স্বীকার করেন কাটমানি নেওয়ার কথা। তারপর তাঁরা পরিষ্কার জানিয়ে দেন, নেওয়া টাকা আর ফেরত দিতে পারবেন না তাঁরা। ওই তৃণমূল নেতারা বলেন,  “দলের কাজে সব টাকা খরচ হয়ে গেছে। কাজেই এখন কেউ টাকা ফেরত চাইলে তা দেওয়ার ক্ষমতা নেই আমাদের।”

 

Spread the love