জেলা প্রথম পাতা

জঙ্গলমহলের কুড়মি ভোট কোন দিকে?

নিজস্ব প্রতিনিধি— ৩১ মার্চা বাঁকুড়ার খাতড়াতে কেন্দ্রীয় কমিটিতে আলোচনার পর ঠিক করা হবে কোন রাজনৈতিক দলকে সমর্থন করা হবে। এই ছয় দিনের মধ্যে দেখে নিতে চাইছে কোন দল আদিবাসী কুড়মি সমাজকে তাদের দাবি দাওয়া আদায়ের ক্ষেত্রে সহযোগিতা করতে এগিয়ে আসছে। আর তারপর সেই অনুযায়ী গ্রামে গ্রামে বার্তা ছড়িয়ে দেবে সমাজ। এদিন সোমবার লালগড়ে সজীব সঙ্ঘের মাঠে সদরিয়া সাড়ান জুড়ুআহি তথা প্রকাশ্য জনসভা থেকে আদিবাসী কুড়মি সমাজ এই বার্তা দিয়েছে।এদিন লালগড়ের এই মাঠে বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, পশ্চিমমেদিনীপুর,ঝাড়গ্রাম থেকে ব্যাপক সংখ্যায় হাজারো কুড়মি সমাজের মানুষ জন উপস্থিত হয়েছিলেন।এই জেলা গুলি থেকে আদিবাসী কুড়মি সমাজের নেতৃত্বরা উপস্থিত হয়েছিলেন।এই সভা থেকে ছত্রধর মাহাতোর“ ন্যায় বিচারের ”দাবি তোলা হয়েছে।

আদিবাসী কুড়মি সমাজের পক্ষ থেকে কুড়মি জাতিকে পুনরায় এসটি তালিকাভুক্ত করা,কোড সহ সারনা ধর্মের স্বীকৃতি এবং কুড়ামালি ভাষাকে সংবিধানে অষ্টম তপশিলে অন্তর্ভুক্ত করা এই দাবি গুলি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করে আসচ্ছে। তারা দাবি গুলি নিয়ে দিল্লীতেও ধর্না আন্দোলনে বসেছিল।এবার লোকসসভা নির্বাচনের আগে আবারও সমাজ এই দাবি গুলি সামনে এনে আন্দোলনে নেমেছে।নেতৃত্বরা পরিস্কার বলছেন ঝাড়গ্রাম আসনে তৃণমূলের প্রার্থীকে তারা ভালো ভাবে নেন নি।এদিন লালগড়ের প্রকাশ্য সভা মঞ্চ থেকে নেতৃত্বরা জানিয়ে দিয়েছেন আগামী ছয় দিনের মধ্যে তারা দেখে নেবেন কোন রাজনৈতিক দল কুড়মিদের পক্ষে কথা বলছে। আগামী একত্রিশ মার্চ সামাজের পক্ষ থেকে সাংবাদিক সম্মেলন করে জানিয়ে দেওয়া হবে কোন দলের পক্ষ রয়েছে আদিবাসী কুড়মি সমাজ।আদিবাসী কুড়মি সমাজের ঝাড়গ্রাম জেলা সভাপতি অনুপ মাহাতো বলেন “ ৩১ মার্চ খাতড়াতে আমারা কেন্দ্রীয় কমিটি,রাজ্য কমিটি,জেলা কমিটি গুলি বসে আলোচনার পর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আমরা সাংবাদিক সম্মলন করে জানিয়ে দেব কুড়মি সমাজ কোন রাজনৈতিক দলকে সমর্থন করবে।যে দল আমাদের পাশে থাকবে আমরা তাদের পাশে থাকব।আমরা ভোট বয়কট করব না।আর সেই মোতবেক গ্রামে গ্রামে বর্তা দেব।” আদিবাসী কুড়মি সমাজের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সম্পাদক রাজেশ মাহাতো বলেন“আদিবাসীদের অধিকার রক্ষার জন্য সমস্ত আদাবাসী,জনজাতি সহ মূলবাসীদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আবেদন জানাই।আমরা আন্দোলনে সমস্ত জনজাতির সাহায্য ও সহযোগিতা কমনা করি।রাজনৈতিক দল গুলি ৩০ মার্চ পর্যন্ত চরমসীমা বেঁধে দেওয়া হল।তারপরেই নির্বাচনে কোন দলকে গ্রহন কাকে প্রত্যাখান এর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।ছত্রধর মাহাতোর অবিলম্বে ন্যায় বিচার দাবি করি।”

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।