দেশ প্রথম পাতা প্রযুক্তি

১০টি ভাষায় ইন্টারনেট স্কুল, সম্পূর্ণ ডিজিটাল সাক্ষরতার লক্ষ্যে দেশ জুড়ে উড়ান জিওর

নিজস্ব প্রতিনিধি : দেশের একশো শতাংশ মানুষকে ইন্টারনেট সম্পর্কে সচেতন করে তুলতে বড় উদ্যোগ নিল রিলায়েন্স জিও। আরও ভাল ভাবে বুঝতে পারবেন ইন্টারনেট পরিষেবার খুঁটিনাটি। দাবি মুকেশ অম্বানীর সংস্থার। অভিনব এই উদ্যোগের নাম দেওয়া হয়েছে ‘ডিজিটাল উড়ান’।

নরেন্দ্র মোদী সরকারের ‘ডিজিটাল ইন্ডিয়া’ উদ্যোগ চার বছর পার করলেও দেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ অংশের ‌এখনও ইন্টারনেট সচেতনতা গড়ে ওঠেনি। মোবাইলে ইন্টারনেটের পরিপূর্ণ সদ্ব্যবহার করা কিংবা সম্ভাব্য বিপদ সম্পর্কে সচেনতা কোনওটাই নেই বেশির ভাগ ইন্টারনেট ব্যবহারকারীই। এবার এই খামতি মেটাতে উদ্যোগী জিও। গতকাল বুধবার সূচনা হওয়া এই উদ্যোগ ইন্টারনেটের অ-আ-ক-খ শেখাবে প্রায় ৩০ কোটি ভারতীয়কে।

জিও কর্তৃপক্ষের দাবি, প্রাথমিক পর্যায়ে ১৩ রাজ্যের ২০০টি কেন্দ্রে এই কর্মশালা হবে। আশা করা হচ্ছে, ৭ হাজার কেন্দ্রে ছড়িয়ে পড়বে এই উদ্যোগ। উপকৃত হবেন কয়েক লক্ষ মানুষ, যাঁরা প্রথমবার ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন। দাবি সংস্থার।

ডিজিটাল উড়ান এমনই এক প্রচেষ্টা, যাতে সব বাধা দূর হয়ে তথ্য বণ্টনে সামঞ্জস্য আসবে। আরও সাধারণের নাগালে আসবে ইন্টারনেট পরিষেবা। রিলায়েন্স জিও-র ডিরেক্টর আকাশ অম্বানীর দাবি, রিলায়েন্স জিওর পক্ষে জানানো হয়েছে, প্রত্যেক শনিবার এই ট্রেনিং চলবে। ইন্টারনেটের পাশাপাশি জিও-ফোনের ব্যবহারের খুঁটিনাটি সম্পর্কেও অবহিত করা হবে এই ট্রেনিংয়ে। দেশের কোনও ভাষার মানুষ যাতে এই ট্রেনিং থেকে বাদ না পড়ে যায়, সেট মাথায় রেখে শুরুতে ১০টি আঞ্চলিক ভাষায় ট্রেনিং মডিউল তৈরি করা হয়েছে।যাতে ১০০ শতাংশ ডিজিটাল সাক্ষরতা অধরা না থাকে।

 

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।