দেশ প্রথম পাতা

‘ভিন জাতে’ বিয়ে করলে জরিমানা! মেয়ের হাতে ফোন দিলে বাবাকে গুনতে হবে দেড় লক্ষ টাকা

নিজস্ব প্রতিনিধি : একুশ শতে এসে মানুষের মধ্যযুগীর ভাবনা চিন্তা। যেখানে মেয়েরা এখনকার ছেলেদেরকে পিছনে ফেলে এগিয়ে যাচ্ছে সেখানে নাকি মেযেদেরকে কোন স্বাধীনতা দেওয়া হয় না। সম্প্রতি এমনই এটা গ্রামের নাম এসেছে সামনে। সেরকমই একটা জায়গা হল গুজরাতের বানাসকান্থার দান্তিওয়াড়া। কোনও অবিবাহিত মেয়ে এখানে মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারবে না বলে নির্দেশ জারি করেছে থাকোর সম্প্রদায়।

গত ১৪ জুলাই ওই এলাকার ঠাকর সম্প্রদায়ের বয়স্ক ব্যক্তিরা জেগোল গ্রামে বসেছিলেন আলোচনায়। সেখানে উপস্থিত ছিলেন ওই সম্প্রদায়ের প্রায় ৮০০ জন। সেখানে তাঁরা অবিবাহিত মেয়েদের মোবাইল ব্যবহার ও ভিন জাতের বিয়ে করার বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছেন। এছাড়া কোনও অবিবাহিত মেয়ে মোবাইল ব্যবহার করলে শাস্তি হিসেবে তাঁর বাবাকে দেড় লক্ষ টাকা জরিমানা দিতে হবে। এছাড়া বিয়ের সময় ডিজে পার্টি বা বহু টাকার বাজি পোড়ানোও বন্ধ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বিয়েতে অতিরিক্ত খরচ বন্ধ করতেই এই নির্দেশ বলে জানানো হয়েছে। তার পর নিজেদের সিদ্ধান্ত জানিয়ে চাপিয়ে দিয়েছেন ফতোয়া। আর তার পরই বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক দানা বেঁধেছে সমাজের বিভিন্ন মহলে।

ঠাকুর সম্প্রদায়ের বৈঠকে আরও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে কোনও মেয়ে পরিবারের অমতে বিয়ে করলে তা অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হবে। এইসব নিয়মগুলিকে গ্রামের লোক তাদের ‘সংবিধান’ হিসেবে মান্যতা দিয়েছে। তবে এ ভাবে সভা ডেকে গ্রামের মোড়লরা কী ভাবে নিষেধাজ্ঞা জারি করতে পারেন, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন বিভিন্ন মহলে। যদিও ঠাকর সম্প্রদায়ের এই সিদ্ধান্তে ভুল বলে কিছু দেখছেন না সেখানকার কংগ্রেস বিধায়ক গানিবেন ঠাকুর। এই পদক্ষেপকে সমর্থন করে তিনি জানিয়েছেন, পড়াশোনায় মন দিতে মেয়েদের সোশ্যাল মিডিয়া থেকে দূরে থাকা উচিত।

Spread the love