জেলা প্রথম পাতা রাজনৈতিক

বিজেপি পার্টি অফিসে কয়েকশো কুইন্টাল রেশনের চাল ।

এ যেন চোরের মায়ের গলা বড়। করোনা পরিস্থিতিতে পশ্চিমবঙ্গের রেশন ব্যবস্থা নিয়ে প্রায় রোজই তোপ দেগে চলেছেন বিজেপি নেতারা। বঙ্গ বিজেপি নেতৃত্বের অভিযোগ, রেশনের চাল নিয়েও দুর্নীতি করছে শাসকদল তৃণমূল। এমনকী রাজ্যের তৃণমূল নেতারা রেশনের চাল লুঠ করছেন বলেও অভিযোগ তাঁদের। তবে এবার অভিযোগের নিশানা ঘুরে গেল তাঁদের দিকেই। বিজেপির পার্টি অফিস থেকেই উদ্ধার হল কয়েকশো কুইন্টাল রেশনের চাল।
অভিযোগ, রেশনের এই বিপুল পরিমাণ চাল জলপাইগুড়ির বানারহাটের পার্টি অফিসে মজুত করা হয়েছিল। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে, বৃহস্পতিবার পুলিশ ও খাদ্য দফতরের ইন্সপেক্টর ওই পার্টি অফিসে হানা দেয়। আর সেখান থেকেই উদ্ধার হয় বস্তা-বস্তা রেশনের চাল। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এ দিন সকালে বানারহাটের তৃণমূল কর্মীদের কাছে খবর আসে, তেলি পাড়ার বিজেপি পার্টি অফিসে মজুদ রয়েছে কয়েকশো কুইন্টাল চাল।
সঙ্গে সঙ্গে খবর যায় পুলিশ ও ফুড ইন্সপেক্টরের কাছে। পঞ্চায়েত সদস্য সীমা দাসও যান ওই এলাকায়। সকলেই দেখেন ওই পার্টি অফিসের ভিতরে মজুত রয়েছে বস্তা-বস্তা চাল। উদ্ধারও করা হয় সেগুলি। স্পষ্টভাবেই তৃণমূল অভিযোগ করেছেন, স্থানীয় রেশন এজেন্ট তার কোটার আগামী মাসের পুরো চালটাই বিজেপির হাতে তুলে দিয়েছে। এই ঘটনার তদন্ত দাবি করেছেন তাঁরা।
যদিও বিজেপির দাবি, গত লোকসভা ভোটের পর ওই পার্টি অফিস আর তাঁরা ব্যবহার করেনি। যদিও সেই দাবির সত্যতা নিয়েই প্রশ্ন উঠে যাচ্ছে, কারণ পার্টি অফিসের মধ্যেই ঝুলছে বিজেপির পতাকা, রয়েছে নরেন্দ্র মোদী-অমিত শাহের ছবিও।
জানা গিয়েছে, শুক্রবার থেকেই আবার এলাকায় চাল বিলি শুরু হবে। বাজেয়াপ্ত করা এই চালও তুলে দেওয়া হবে সাধারণ মানুষের হাতে।

Spread the love