অফবীট করোনা প্রথম পাতা রাজ্যের খবর

তবে কি এবার প্লাজমা থেরাপিতে করোনা মুক্তি! শিলমোহর রাজ্যের ।

সম্প্রতি কোভিড ১৯- এর চিকিৎসায় নতুন এক দিক খুলে গেলো বলা যেতে পারে। ব্লাড-প্লাজমা থেরাপির সাহায্যে চিরতরে সেরে উঠবে রোগী। নতুন এক পদ্ধতিকে ঘিরেই জল্পনা। কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ডাক্তার ইয়ান লিপকিনের দাবি, মারণ এই ভাইরাসের চিকিৎসায় ব্লাড-প্লাজমা থেরাপিই অত্যন্ত সহায়ক এবং রোগকে চিরতরে নির্মূল অবধি করতে সক্ষম। করোনায় আক্রান্ত কোনও ব্যক্তি সুস্থ হয়ে ওঠার পর তাঁর শরীর থেকে অ্যান্ডিবডি নিয়ে ১০ জন করোনা আক্রান্তের দেহে প্লাজমা থেরাপির মাধ্যমে তা প্রয়োগ করা হয়। পরীক্ষায় দেখা গিয়েছে যে, ওই ১০ জনের প্রত্যেকেই সুস্থ হয়ে গিয়েছেন। সম্প্রতি এই নতুন পদ্ধতির কথা প্রকাশ্যে আসতেই চিকিৎসক মহলে সার পরে গেছে। কেননা চিকিৎসকদের কথায়, বাজারে যখন অ্যান্টিবায়োটিক আসেনি, তখন এই পদ্ধতিতেই রোগ নিরাময় করা হত। করোনার ক্ষেত্রেও এই পদ্ধতি কাজ করবে বলে চিকিৎসকেরা আশা করছেন। আর পশ্চিমবঙ্গ সরকারও এই পদ্ধতিতে শিলমোহর দিয়েছেন। রাজ্যে করোনা থেকে যাঁরা সেরে উঠেছেন, তাঁদের থেকে প্লাজমা সলগ্রহ করে চিকিৎসা করা হবে। জানা গেছে, সুস্থদের ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টিন পর্ব মিটলে এবং যদি তাদের শরীর সায় দেয় তাহলে এই পদ্ধতির আরোপ করা হবে। সম্প্রতি করোনামুক্ত হাবড়ার তরুণী মনামী বিশ্বাস এবিষয়ে জানিয়েছেন, তিনি প্লাজমা থেরাপিতে অবশ্যই সাহায্য করবেন। যদি তাঁর জন্য কোনও জীবন বাঁচে, তাহলে তিনি নিজেকে ধন্য মনে করবেন। বলা যেতে পারে আপাতত অ্যান্টিবায়োটিক আবিষ্কার না হলেও, হয়তো এই প্লাজমা থেরাপিতে সেরে উঠবে একাধিক আক্রান্ত রোগী।

Spread the love