কলকাতা প্রথম পাতা

আদালতের রায়ে স্বস্তিতে রাজীব কুমার, আরো ১ সপ্তাহ বাড়ানো হল রক্ষাকবচ 

নিজস্ব প্রতিনিধি: লোকসভা ভোটের আগে থেকে সিবিআইয়ের র‍্যাডারে পড়েছে কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার। কিন্তু এখন সিবিআই-রাজীব কুমার দুতরফই আদালতের তত্বাবধানেই রয়েছে। রাজ্যস্তর তো বটেই জাতীয় স্তরে হাইপ্রোফাইল মামলা হিসাবে সারদা মামলায় আইপিএস রাজীব কুমারের এই মামলাটি টি রয়েছে। ২০১৩ সালে দেশের সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশে সারদা – রোজভ্যালি প্রভৃতি চিটফান্ড মামলায় প্রভাবশালীদের বিরুদ্ধে সিবিআই তদন্ত চালাচ্ছে।তবে তাৎপর্যপূর্ণভাবে বলা যায়,  গত পাঁচ বছরে সিবিআই কয়েকজন কে গ্রেপ্তার করা ছাড়া উল্লেখযোগ্য কোন সাফল্য পাইনি।তবে এর মধ্যেই স্বস্তিতে ফিরলেন রাজীব কুমার। সোমবার দুপুরে কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি মধুমতী মিত্রের এজলাসে আইপিএস রাজীব কুমারের দায়ের করা মামলায় গ্রেপ্তারিতে রক্ষাকবচের মেয়াদ এক সপ্তাহ বাড়ানো হল।

আগেকার নির্দেশিকায় যেসব শর্তগুলি ছিল, তা অপরিবর্তিত রেখেছে আদালত। সিবিআইয়ের তদন্তে সবরকম সহযোগিতা করবার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে তাঁকে। তবে সিবিআই এই আইপিএস কে গ্রেপ্তার করতে পারবেনা।  প্রসঙ্গত, বিধাননগর পুলিশ কমিশনার পদে থাকাকালীন রাজ্যের গড়া সিট কমিটির প্রধান ছিলেন আইপিএস রাজীব কুমার। সিবিআই এর অভিযোগ – ওই সময় সারদা মামলায় পেন ড্রাইভ, লাল  ডাইরি, সিসিটিভির ফুটেজ অত্যন্ত দক্ষতায় প্রমাণ লোপাট লোপাট হয়ে গিয়েছে।কিন্তু বেশ কয়েকবার সিবিআইয়ের জেরার সম্মুখীন হলেও রাজীবের বিরুদ্ধে উপযুক্ত তথ্য প্রমাণ পাইনি সিবিআই। ঠিক এইরকম পরিস্থিতিতে সিবিআই এই আইপিএসের বিরুদ্ধে সমন ইস্যু করে। এই সমন ইস্যু কে চ্যালেঞ্জ করে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেন রাজীবের আইনজীবী। গত ১৭ জুলাই থেকে টানা শুনানি চলছে বিচারপতি মধুমতী মিত্রের এজলাসে। সোমবার দুপুরে কলকাতা হাইকোর্ট জানিয়ে দেয়, ২২ শে জুলাই অবধি থাকা আইনি রক্ষাকবচটি আরও সাতদিন বাড়ানো হল। অর্থাৎ সিবিআই এই আইপিএস কে গ্রেপ্তার করতে পারবেনা।

Spread the love