অফবীট দেশ প্রথম পাতা

সুপ্রিম নির্দেশে থমকালো ইতিহাস, স্থগিত পুরীর রথযাত্রা।

করোনার থাবায় এবার থমকালো পুরীর রথের চাকাও। সম্ভবত ইতিহাসে এই প্রথম। এই বছর হবে না পুরীর রথযাত্রা। সুপ্রিম কোর্টের রায়ে আপাতত স্থগিত হয়ে গেল এ বছরের পুরীর ঐতিহ্যশালী রথযাত্রা। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ব্যাপক বৃদ্ধির আশঙ্কাতে রথযাত্রার জন্য ছাড়পত্র দিল না শীর্ষ আদালত। প্রধান বিচারপতি এস এ বোবদের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ এই মামলার রায়ে বলেন, ‘‘রথযাত্রার অনুমতি দিলে প্রভূ জগন্নাথ আমাদের ক্ষমা করবেন না।’’

 

আগামী ২৩ জুন পুরীতে রথযাত্রার উৎসব শুরু হওয়ার কথা ছিল। ১০-১২ দিন ধরে চলা এই উৎসবে প্রায় ১০ লক্ষ মানুষের সমাগম হয় ওড়িশার এই সৈকত শহরে। কিন্তু করোনাভাইরাসের সংক্রমণের প্রেক্ষিতে সেই রথযাত্রা পিছিয়ে দেওয়ার আর্জি জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে একটি মামলা দায়ের হয়। লোক সমাগম কমাতে এর আগেই জগন্নাথ, বলরাম ও সুভদ্রার রথ হাতি বা মেশিনে টানা হবে বলে নির্দেশ দিয়েছিল ওডিশা হাইকোর্ট। কিন্তু সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে এবার বন্ধই হয়ে গেল পুরীর বহু বছরের ঐতিহ্যমনণ্ডিত রথযাত্রা। অতিমারীর সময় এত মানুষের সমাগম হতে দেওয়া যায় না বলে জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। সাধারণ মানুষের স্বাস্থ্যের কথা ভেবেই এই নির্দেশ দিতে বাধ্য হলেন বলে জানিয়েছেন প্রধান বিচারপতি এসএ বোবদে।
প্রসঙ্গত, ওডিশা বিকাশ পরিষদ নামে একটি অলাভজনক সংস্থা আদালতে এই মর্মে আবেদন করে যে রথযাত্রা উপলক্ষ্যে নানাবিধ অনুষ্ঠান ও উত্‍সব ১০-১২ দিন ধরে চলে। সমুদ্রতীরবর্তী পুরীতে রথযাত্রা উপলক্ষ্যে অন্তত ১০ লক্ষ মানুষের সমাগম হয়। সেখানে কী ভাবে সামাজিক দূরত্ববিধি মানা সম্ভব বলে প্রশ্ন তুলে আদালতের দ্বারস্থ হয় এই সংস্থা। সেই আবেদনের ভিত্তিতে পুরীর রথযাত্রা স্থগিত রাখার নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট। এর আগে নিজেদের উদ্যোগেই রথযাত্রা এই বছর বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মাহশ এবং ইসকন।

Spread the love