কলকাতা প্রথম পাতা

তাঁর ‘মন কি বাত’ ভালো লাগেনি, সাসপেন্ড হওয়ার মুখে এই হেভিওয়েট নেতা

নিজস্ব প্রতিনিধি— শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে সাসপেন্ড হতে চলেছেন গড়বেতার প্রাক্তন বিধায়ক সুশান্ত ঘোষ। একটি পোর্টালে সুশান্তবাবুর লেখা ডায়েরি সিপিএম শীর্ষনেতৃত্বের ভালো লাগেনি। তিনি তাঁর লেখাতে শীর্ষনেতাদের অনেকেই কাঠগড়ায় তুলেছেন। তিনি যে ডায়েরি লিখেছিলেন, তা বই আকারে প্রকাশিত হয়েছে। আরও একটি পোর্টালে তিনি ফের কাঠগড়ায় তুলেছেন সিপিএমকে। একই সঙ্গে বেশ কয়েকটি জেলা থেকে সুশান্ত ঘোষের বিরুদ্ধে রাজ্য কমিটির বৈঠকে ক্ষোভ উগড়ে দেন নেতারা। সুশান্তবাবু তিনি তাঁর লেখায় বিগত বাম সরকার পরিচালনার ক্ষেত্রে ত্রুটি-বিচ্যুতি এবং আরও গোপন কথা তুলে ধরেছেন।

উল্লেখ্য, ২০১১ সালে রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় এলেও গড়বেতা বিধানসভা থেকে সুশান্তবাবু জিতেছিলেন। কিন্তু কঙ্কাল কাণ্ডের জেরে তাঁর জেলায় ঢোকা বারণ হয়ে গিয়েছিল। মেদিনীপুর জেলায় ঢুকতে না পারার কারণে সিপিএমের পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা সম্পাদকমণ্ডলী থেকে ‘অব্যাহতি’ দেওয়া হয়। তবে এখনও তিনি জেলা কমিটির সদস্য। পশ্চিম মেদিনীপুরের সিপিএম নেতাদের অভিযোগ, জেলায় ঢুকতে না পারলেও সম্প্রতি বিষ্ণুপুরের (বাঁকুড়া জেলা) যদুভট্ট মঞ্চে নিজের পুরনো এলাকার দলীয় নেতা-কর্মীদের নিয়ে বৈঠক করেছেন সুশান্তবাবু। তাঁদের মতে, জেলা নেতৃত্বকে না জানিয়ে এমন বৈঠক ‘উপদলীয় কার্যকলাপে’র সামিল এবং অবশ্যই শৃঙ্খলাভঙ্গ। এই কারণেই প্রাক্তন মন্ত্রীর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ চায় জেলা সিপিএম।

Spread the love