দেশ প্রথম পাতা

‘আমার দাদার মতো সাহস ক’জনের আছে’! সভাপতির পদ থেকে রাহুলের ইস্তফার পরেই তাঁকে পূর্ন সর্মথন জানালেন বোন প্রিয়ঙ্কা

নিজস্ব সংবাদদাতা: লোকসভা ভোটে বিজেপির কাছে কার্যত মুখ থুবড়ে পড়েছে রাহুল গান্ধীর নেতৃত্বাধীন কংগ্রেস। কোনক্রমে ৫২টি আসন নিয়ে লোকসভায় নিজেদের জায়গা ধরে রেখেছে রাহুল-সোনিয়ারা। কিন্তু ভোটে বিপর্যয়ের পর থেকেই দলের হারের দায় নিজের কাঁধেই তুলে নিয়েছিলেন রাহুল গান্ধী। এমনকি ভোটের ফল বেরোনোর পরেই কংগ্রেসের ওয়ার্কিং কমিটিকে রাহুল জানিয়ে দিয়েছিলেন যে তিনি সভাপতি পদ ছাড়তে চান, কংগ্রেস যেন অন্য কোন নেতা খুঁজে বের করে। কিন্তু কংগ্রেস নেতৃত্ব সেই পথে না হাঁটলেও তাঁরা রাহুলকে বারবার বোঝানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু নিজের সিদ্ধান্তে অনড় থেকেই বুধবার কংগ্রেসের সভাপতির পদ থেকে সরে দাঁড়িয়ে ৪ পাতার চিঠি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন রাহুল। তারপরেই আজ বৃহস্পতিবার তাঁর বোন প্রিয়ঙ্কা গান্ধী বললেন, আমার দাদার মতো সাহস ক’জনের আছে? তিনি বুঝিয়ে দিয়েছেন, রাহুলের সিদ্ধান্তে তাঁর পূর্ণ সমর্থন আছে।

টুইটারে প্রিয়ঙ্কা লিখেছেন, রাহুল গান্ধীর মতো সাহস খুব কম লোকেরই আছে। তোমার সিদ্ধান্তকে সম্মান জানাই। বুধবার রাহুল ইস্তফা দিয়ে বলেন, দলকে নতুন করে গড়ে তোলার জন্য ‘কঠিন সিদ্ধান্ত’ নিতেই হবে। চারপাতার চিঠিতে তিনি বলেছেন, সভাপতি নির্বাচিত করার জন্য কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটি কয়েকজনকে দায়িত্ব দিক। তাঁর পক্ষে নির্বাচনে অংশ নেওয়া ঠিক হবে না। তাঁর কথায়, কংগ্রেসের সভাপতি হিসাবে ২০১৯ সালের পরাজয়ের জন্য আমিই দায়ী। আগামী দিনে পার্টির ঘুরে দাঁড়ানোর জন্য বিশ্বাসযোগ্যতা ফিরিয়ে আনা জরুরি। সেজন্যই আমি ইস্তফা দিচ্ছি। একইসঙ্গে তিনি টুইটারে লিখেছেন, পার্টিকে নতুন করে গড়ে তোলার জন্য কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে হবে। ২০১৯ সালে ব্যর্থতার জন্য অনেকেই দায়ী হবেন। তবে দলের সভাপতি হিসাবে নিজের দায়িত্ব অস্বীকার করলে অন্যায় হবে।

 

 

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।