প্রথম পাতা রাজনৈতিক রাজ্যের খবর

রাজ্যপাল মহুয়া মৈত্রর টুইট যুদ্ধে সরগরম রাজ্য রাজনীতি।

আবারও টুইট যুদ্ধে সরগরম রাজ্য রাজনীতি। রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় ও কৃষ্ণনগরের তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্রর টুইট যুদ্ধ রাজ্য রাজনীতিতে অন্যমাত্রা পেয়েছে। রাজ্যপালকে নিশানা করে মহুয়া তাঁর প্রথম টুইটটি করেছিলেন শুক্রবার। তাতে কৃষ্ণনগরের সাংসদ লেখেন, পশ্চিবঙ্গের রাজ্যপাল বিজেপির হয়ে তির ছুড়ছেন। পাল্টা টুইট করেন রাজ্যপাল। মহুয়াকে উদ্দেশ করে লেখেন, “মহুয়া মৈত্র তাঁর নিজের সরকারের বিরুদ্ধে যে তিরগুলি নির্দিষ্ট লক্ষ্যে ছুড়েছিলেন সেগুলি ঘাতক ছিল। যা আমাদের পঞ্চায়েতের পুকুর চুরি চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে। ত্রিস্ত্রর পঞ্চায়েতে কাটমানির কথা আবার মনে করিয়ে দিয়েছে।” পাশাপাশি তিনি আরও লেখেন, ,

“পঞ্চায়েতের দুর্নীতি সামনে এনে নিজে এখন বেকায়দায় পড়েছেন। আপাদমস্তক চুরি-দুর্নীতিতে ডুবে থাকা পঞ্চায়েতের চুরি সকলের নজরে এনে এবার এমবি-র অনুগ্রহ পেতে চাইছেন। রাজ্যপালকে আক্রমণ কি সেজন্য?” সেইসঙ্গে টিপ্পনি কেটে ধনকড় এও লিখেছেন, “তবে এমন অসহায় অবস্থায় আপনি একা নন। আপনার মতো যোগ্য নেতা-নেত্রীদের বন্দিদশা দেখে অবাক হই!” পাল্টা ফের একটি টুইট করেন মহুয়া। তাতে রাজ্যপালকে আঙ্কলজি সম্বোধন করে কৃষ্ণনগরের সাংসদ লেখেন, “আঙ্কলজি, তিনটি পয়েন্ট– এক, কার হাতে কতটা রক্তের দাগ আছে তা দেখে বিজেপিতে পদোন্নতি হয়। তৃণমূল কঠোর পরিশ্রমকে মর্যাদা দেয়। দুই, উকিল হিসেবে আপনার কেরিয়ার বিশেষ উজ্জ্বল নয়। যত দিন রাজ্যপাল রয়েছেন, ততদিন অন্তত রাজভবনের সম্মানটুকু বজায় রাখার চেষ্টা করুন। তিন, পরবর্তী ভোটে আপনি রাজস্থান থেকে লড়তেই পারেন। তার জন্য নিজেকে সুস্থ রাখুন।’’ বলাইবাহুল্য এই টুইট যুদ্ধ নজর কেড়েছে রাজনৈতিক মহলের।

Spread the love