অফবীট দেশ প্রথম পাতা

প্যারোলে মুক্ত দাগী অপরাধী খুন করল ক্রাইম ব্রাঞ্চের এক অফিসারের স্ত্রীকে।

করোনাভাইরাসের জেরে সামাজিক দূরত্ব বাড়ানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সে কারণে দেশের অনেক কারাগার থেকেই বন্দিদের প্যারোলে মুক্তি দেওয়া হচ্ছে। নাগপুরেও এক সপ্তাহ আগেই এক দাগী অপরাধীকে মুক্তি দেওয়া হয়েছিল। সেই অপরাধীই শনিবার খুন করল ক্রাইম ব্রাঞ্চের এক অফিসারের স্ত্রীকে। গত ২৮ মার্চ প্যারোলে মুক্তি পেয়েছিল অভিযুক্ত নবীন গোডফদে।
পুলিশ সূত্রে খবর, ওই অফিসারের ছেলের সঙ্গে পরিচয় ছিল নবীনের। কিন্তু স্ত্রীয়ের ছেলের এই বন্ধুত্ব নিয়ে আপত্তি ছিল। সেই রাগেই শনিবার সকাল দশটার দিকে নগরীর নন্দনভান এলাকায় ক্রাইম ব্রাঞ্চের প্রধান কনস্টেবল অশোক মুলের স্ত্রী সুশীলার গলা কেটে হত্যা করেছেন নবীন গোটাফোদে নামের ওই খুনি। করোনার প্রাদুর্ভাবে কারাগারে ভিড় কমাতে সম্প্রতি তাকে মুক্তি দেওয়া হয়েছিল।
মুক্তি পাওয়ার পর গোটাফোদে সুশীলার ছেলের সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছিল। স্কুল জীবন থেকে তারা দু’জন বন্ধু ছিল। সুশীলা এই বন্ধুত্বের বিষয়ে আপত্তি জানানোয় রেগে যায় গোটাফোদ। শুক্রবার রাতে তিনি সুশীলার ছেলের সঙ্গে দেখা করতে এসেও পারেনি।

তাই শনিবার সে আবার তাদের বাড়িতে ফিরে যায় এবং তখনই সুশীলাকে গলা কেটে হত্যা করে। তাকে থামানোর চেষ্টা করলে গোটাফোদ তার বন্ধুর ওপরও হামলা চালায়। পরে সেখান থেকে পালিয়ে যায়। পুলিশ কমিশনার নির্মলা দেবী জানান, গোটাফোদেকে গ্রেফতারের জন্য খোঁজ চালানো হচ্ছে। তার বিরুদ্ধে একটি খুনের মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Spread the love