কলকাতা প্রথম পাতা

২১শের আগে উঠল না অনশন! শিক্ষামন্ত্রীর চেষ্টাতেও কাটল না প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন-জট

নিজস্ব প্রতিনিধি: শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে অনশনরত প্রাথমিক শিক্ষকদের বৈঠক হলেও, তাঁদের দাবি মতো সার্বিক আশ্বাস না পাওয়ায় অনশন চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্তেই অনড় রইলেন তাঁরা। যদিও সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, যথেষ্ট সদর্থক মনোভাব নিয়েই, আন্দোলনরত শিক্ষকদের সঙ্গে আলোচনা করা হয়েছে।কেন্দ্রীয় সরকারের কাঠামো (পিআরটি স্কেল) মেনে বেতন এবং ১৪ জন শিক্ষকের নিয়ম বহির্ভূত বদলির অভিযোগে গত এক সপ্তাহ ধরেই বিকাশ ভবনের সামনে অনশন করেছেন প্রাথমিক শিক্ষকরা।শনিবার আন্দোলনকারীদের দাবিদাওয়া শুনে উদ্ভুত জট কাটানোর উদ্যোগ নিয়েছিলেন শিক্ষামন্ত্রী । সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে শিক্ষকদের প্রতিনিধিদের বিকাশ ভবনে আলোচনায় ডাকেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। প্রায় ঘণ্টা দেড়েক বৈঠকও হয়। কিন্তু, তাতেও সমাধান সূত্র বের হল না। দুটি দাবিতে অনশন চলছে প্রাথমিক শিক্ষকদের। শনিবার এই অনশন আটদিনে পড়েছে। প্রথম দাবি, বেতন কাঠামো পুনর্বিন্যাস করতে হবে। এবং দ্বিতীয় দাবি, বদলি হওয়া ১৪ জন প্রাথমিক শিক্ষককে পুরনো স্কুলে পুনর্বহাল করতে হবে। এ দিন বৈঠক থেকে বেরিয়ে প্রাথমিকশিক্ষকরা জানিয়েছেন, বদলির ব্যাপারে যা যা অনিয়ম হয়েছে সেগুলি খতিয়ে দেখে সমাধান করার চেষ্টা হবে। অন্যদিকে গ্রেড পে বাড়ানোর বিষয়টিকেও বাস্তব পরিস্থিতি, সরকারের আর্থিক সীমাবদ্ধতা মাথায় রেখে সহানুভূতির সঙ্গে বিবেচনা করা হবে।সরকারের তরফে চেষ্টা হয়েছিল একুশে জুলাইয়ের আগে যাতে অনশন তোলা যায়। কিন্তু বৈঠক হলেও তা সে ভাবে ফলপ্রসূ হল না।শিক্ষকদের দাবি পুরোপুরি না মানা গেলেও আংশিক মানা হতে পারে, এমনটাই ইঙ্গিত দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী। তিনি জানিয়েছেন, “মুখ্যমন্ত্রী বিষয়টি সহানুভূতির সঙ্গে দেখছেন। যতটা করা সম্ভব আমরা করব।”

Spread the love