কলকাতা দেশ প্রথম পাতা

১০ মাস আগে ভিসা শেষ হলেও ভারতেই রয়ে গিয়েছিলেন নুর! অবশেষে দেশ ছাড়ার নির্দেশ দিল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক

নিজস্ব প্রতিনিধি: তৃণমূলের হয়ে প্রচার করায় ফিরদৌসের পর বাংলাদেশি অভিনেতা নুরকে ভারত ছেড়ে বাংলাদেশ ফিরে যাওয়ার নির্দেশ দিল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। সংবাদ সংস্থা এএনআই জানিয়েছে, তাঁর ভিসাও ফুরিয়ে গিয়েছিল। সেক্ষত্রেও তাঁর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। নয়াদিল্লি এ কথা জানিয়ে দিয়েছে নবান্নকে। জানিয়ে দেওয়া হয়েছে বাংলাদেশ হাই কমিশনকেও।ব্যবসায়িক ভিসায় রাজনৈতিক প্রচার চালিয়েছেন নুর। শুধু তাই নয়, তাঁর ভিসার মেয়াদও ফুরিয়ে গিয়েছিল। ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও এদেশে থাকছিলেন নুর। ভিসার নিয়ম ভাঙায় তাঁর বিরুদ্ধে উপযুক্ত পদক্ষেপ করা হবে বলে জানিয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। 

রায়গঞ্জে তৃণমূল প্রার্থীর হয়ে ভোট চেয়েছিলেন অভিনেতা ফিরদৌস। বিজেপির অভিযোগের পর বিষয়টি নিয়ে খোঁজখবর নিতে শুরু করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। অভিবাসন দফতর রিপোর্টে জানায়, ভারতে কাজের জন্য ভিসা দেওয়া হয়েছিল ফিরদৌসকে। কিন্তু সেই শর্ত লঙ্ঘন করেছেন অভিনেতা। অভিবাসন দফতরের রিপোর্টের ভিত্তিতে ফিরদৌসের ব্যবসায়িক ভিসা বাতিল করেছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। তাঁকে অবিলম্বে ভারত ত্যাগের নোটিস দেওয়া হয়। কালো তালিকাভূক্তও করা হয় ফিরদৌসকে। শুধু ফিরদৌস নন, মদন মিত্রের সঙ্গে সৌগত রায়ের সমর্থনে প্রচারে নেমেছিলেন ‘রাণী রাসমণি’র রাজা রাজ চন্দ্রের অভিনেতা গাজি আবদুন নুর। জানা গিয়েছে, এদেশে কাজের অনুমোদনপত্র ছিল দুই বাংলাদেশি অভিনেতার। সেই হিসেবেই ভিসা পেয়েছিলেন তাঁরা। কিন্তু ভিসার শর্ত লঙ্ঘন করে রাজনৈতিক প্রচারে সামিল হন তাঁরা। গাজি নুরের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ করে বিজেপি।

 

 

 

 

Spread the love