করোনা দেশ প্রথম পাতা

মা-ঠাকুমার করোনা, বাবার দেহ আগলে বালক ।

মা এবং ঠাকুমা- দু’জনেই করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে। বাড়িতে কেউ নেই। আর তাই, ঘণ্টার পর ঘণ্টা বাবার নিথর দেহ আগলে বসে রইল ১০ বছরের কিশোর ক্লাস ফাইভের ছাত্র জিভা!
মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে চেন্নাইয়ে। জিভার বাবা, বছর পঁয়ত্রিশের আয়ানার কিছুদিন আগে একটি পথ দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়ে সরকারি হাসপাতালে ভর্তি হন। বিগত কয়েক মাস ধরে তিনি শয্যাশায়ী ছিলেন। দেখাশোনা করছিলেন স্ত্রী এবং মা।করোনা সংক্রমণের ভয়ে গত ৮ মে হাসপাতাল থেকে ছুটি দিয়ে দিলে বাড়ি নিয়ে আসা হয় আয়ানারকে। কিন্তু ভিলুপুরমের বাড়িতে ফেরার পরই জিভার মা ও ঠাকুমা অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাঁদের পরীক্ষা করানো হলে করোনাভাইরাস পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। হাসপাতালে ভর্তি করা হয় দু’জনকেই।
বাড়িতে জিভার বাবার অবস্থা খারাপ হতে থাকে। ক’দিন পরই মারা যান তিনি। বাড়িতে কেউ না থাকায় ১০ বছরের জিভা বাবার দেহ আগলে বসে থাকে। খবর পেয়ে পুলিশ জিভার বাবার শেষকৃত্যে সাহায্য করেছে। ভিলুপুরমের পুলিশসুপার জয়কুমার জানান, জিভাকে কাকা-পিসিদের কাছে রাখা হয়েছে। তাকে ৫,০০০ টাকা, ২০ কেজি চাল দিয়েও সাহায্য করেছে পুলিশ। জয়কুমারের কথায়, ‘বাচ্চাটিকে বুঝিয়েছি, ওর মা-ঠাকুমা শীঘ্রই সুস্থ হয়ে ফিরে আসবেন।’

Spread the love