আন্তর্জাতিক প্রথম পাতা

মারা তো দুরের কথা, পোষাও নিষিদ্ধ! তবু উড়তে উড়তেই আচমকা মাটি পড়ে যাচ্ছে একের পর এক রক্তমাখা পাখি, কিন্তু কেন?

নিজস্ব প্রতিনিধি: কথায় বলে যদি পাখির মতো ডানা থাকত তাহলে তো ওড়ার জন্য আর কোন বাধাই থাকত না।এমনকি আকাশেও নিদিষ্ট কোন সীমা থাকত না। কারণ, পাখি সীমাহীন, মুক্তভাবে উড়ে বেড়ায়। তবে এতটুকুও। কিন্তু উড়তে উড়তে তাদের আকস্মিক মৃত্যুও যেন বুকের ভিতরে হৃদস্পন্দন কয়েকগুন বাড়িয়ে তোলে। হ্যাঁ সত্যি, সুদুর অস্ট্রেলিয়ায় যেন পাখির মড়ক লেগেছে। তারা দেখতে প্রায় কাকাতুয়ার মতোই, কিন্তু আকার-আয়তনে সামান্য ছোট, ঠোঁট খানিক লম্বা। কোরেলা নামের এই পাখিটি অস্ট্রেলিয়ায় সংরক্ষিত প্রজাতির অন্তর্ভুক্ত৷ মারা দূরের কথা, পোষাও নিষিদ্ধ সেদেশে।

কিন্তু গত সপ্তাহ থেকে ছোট-বড় নানা আকারের কোরেলা পাখি মারা যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া জুড়ে।প্রাথমিক ভাবে দেখে মনে হচ্ছে, যেন আচমকাই আকাশ থেকে পড়ে মৃত্যু হয়েছে তাদের৷ কেউ মাটিতে পড়ে ছটফট করছে, কারও আবার ঠোঁটের কাছে রক্ত৷ নয়-নয় করে গত কয়েক দিনে অন্তত ৬০টি পাখির এ ভাবে অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে! প্রাথমিক পরীক্ষা-নিরিক্ষার পর পক্ষীবিশারদদের অনুমান, বিষ খেয়েই মারা যাচ্ছে কোরেলা পাখিগুলি৷ কিন্তু কী ভাবে পাখিগুলির শরীরে বিষ ঢুকছে, সে সম্পর্কে কোনও ধারণাই করতে পারছেন না কেউ৷অস্ট্রেলিয়ায় এই পাখি ধরলে বা মারলে শাস্তি হয় আইনি ভাবে৷ জরিমানা কিংবা কারাবাসও হতে পারে৷ এই পরিস্থিতিতে কে বা কারা বিষ দিয়ে পাখি মারছে, তা নিয়ে অথৈ জলে পড়েছেন পক্ষীবিশারদেরা৷ যদি নিশ্চিত ভাবে বোঝা যেত যে কেউ বা কারা ইচ্ছাকৃত ভাবে বিষ দিয়ে পাখিগুলিকে মেরে ফেলছে, সে ক্ষেত্রে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া যেত৷

Spread the love