জেলা প্রথম পাতা

ভোট চাইতে ভয় নেই! সৌজন্যতার মধ্যেই প্রচার শুরু দেবের

নিজস্ব প্রতিনিধি : ভোট চাইতে ভয় নেই! ঘাটালের সাধারণ মানুষের জন্যে মঞ্জের উপর থেকে এই বার্তা দিলেন টলিউড অভিনেতা তথা সাংসদ দীপক অধিকারী (দেব)। এই দিন তিনি আবার ও প্রমাণ করলেন যে, রাজনীতি সৌজন্যতার সঙ্গে করা যায়। প্রচারের শুরুতেই তাঁকে ব্যক্তিগতভাবে আক্রমণ করেছেন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ভারতী ঘোষ। কিন্তু তিনি তাঁর বিরুদ্ধে কোনো কু’কথা বলেন না বরং সৌজন্যতা বোধ দেখালেন।পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটাল থেকে এবারও দেবকে প্রার্থী করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। এদিন ঘাটাল থেকে প্রচার শুরু করেন তৃণমূল প্রার্থী দীপক অধিকারী।

এই দিন তিনি প্রচারের শুরুতেই বলেন, ”বিরোধীকে নিয়ে আমি কিছু বলব না। আর আমার ভারতী ঘোষকে নিয়ে কোন অভিযোগ নেই। আমি ওনার বিষয়ে কিছু বলতে চাই না। আর আমি চাইব উনিও যেন এই কাজ না করেন। ভোট হোক কাজের নিরিখে”। তিনি মানুষের উদ্দেশ্যে বলেন, উন্নয়নের মান খতিয়ান দেখে তৃণমূল কংগ্রেসকে ভোট দেবেন। বিরোধীদের উদ্দেশ্যে প্রচার সভা থেকেই সবুজ সাথী, কণ্যাশ্রী, রুপোশ্রী প্রভৃতির কথা তোলেন তিনি।কেন্দ্রের মোদী সরকারের ‘বেটি বাঁচাও, বেটি পড়াও’ প্রকল্পটি আদতে ‘কন্যাশ্রী’ প্রকল্পের অনুকরণে তা তিনি স্পস্ট ভাষায় বুঝিয়ে দেন।

সম্প্রতি, ঘাটালে দেবের বিপরীতে পশ্চিম মেদিনীপুরের দাপুটে পুলিস সুপার ভারতী ঘোষকে প্রার্থী করেছে বিজেপি সরকার। সোমবার রাতে দাসপুরে নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে ভারতী ঘোষ অভিযোগ করেন, “গত ৫ বছরে ঘাটাল লোকসভা কেন্দ্রে কোনও উন্নয়ন-ই হয়নি। রাস্তাঘাট থেকে শুরু করে, ঘাটাল মাস্টার প্ল্যান, পানীয় জল, সমস্ত কিছুর-ই বেহাল দশা।” তৃণমূলের সাংসদ অভিনেতা দেবকে ব্যক্তিগত স্তরে আক্রমণ করতে তিনি পিছু-পা হয়নি, ”ঘাটালবাসী এমন একজন এমপিকে পেয়েছিলেন যে ৫ বছরে ৫ বার ঘাটাল আসেন নি। তাঁকে ঘাটালবাসী দেখতে পায়নি।”

এদিন অবশ্য আক্রমণের বিরুদ্ধে পাল্টা আক্রমণ নয়, বরং সৌজন্যতা বজায় রাখার-ই বার্তা দিলেন দেব।

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।