কলকাতা প্রথম পাতা

এবার মুকুলের দলবদলের খেলা দেখবেন দিলীপ! কড়া নিয়মের মধ্যেই বিজেপিতে নাম লেখাতে হবে, টিকিট না দেওয়ার সিদ্ধান্ত বঙ্গ নেতাদের

নিজস্ব প্রতিনিধি: এ বার সরাসরি দলে বেনোজল ঢোকার আগে বাধা হয়ে দাঁড়ালেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বিজেপির অন্দরে শোনা যায় এমনকি তৃণমূলের অনেক নেতাই বলেন, বিজেপিতে কারা নাম লেখাছেন তা অনেক সময় জানানোই হয় নি বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে। তাঁকে অন্ধকারে রেখেই চলে আসচে দল বদলের খেলা। কিন্তু এবার তা হতে দিতে রাজি নন বিজেপি সভাপতি। জানা গিয়েছে, রবিবার মুকুল রায়ের উপস্থিতিতে ভবানীপুরের কয়েকজন তৃণমূলকর্মীর বিজেপিতে যোগ দেওয়ার কথা ছিল।  হেস্টিংসে বিজেপির ভাড়া নেওয়া অফিসে এই কর্মসূচি আয়োজিত হবে বলেও ঠিক হয়েছিল। কিন্তু দলের অন্দরের খবর, দিলীপ ওই যোগদান কর্মসূচি বাতিল করার নির্দেশ দেন বিজেপির মিডিয়া সেলকে। সংশ্লিষ্ট জেলা নেতৃত্বকে না জানিয়ে কী ভাবে অন্য দলের কর্মীদের দলে নেওয়া হচ্ছে, সে প্রশ্নও তুলেছেন দিলীপ। এ কথা জানিয়ে দেওয়া হয় মুকুলকে। বাতিল হয়ে যায় মুকুলের যোগদান কর্মসূচি।তবে শুধু তাই নয়, বেনজির সিদ্ধান্ত প্রায় নিয়েই ফেলেছে রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব।অন্য দল থেকে বিজেপিতে যোগ দিতে চাইলে এবার থেকে মানতেই হবে কঠিন শর্ত। ইচ্ছা হলেই অন্য দলের কোনও পদাধিকারী বা নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি বিজেপিতে এসেই ‘নেতা’ হতে পারবেন না।

সম্প্রতি তৃণমূল থেকে একাধিক পুরসভার কাউন্সিলরের বিজেপিতে যোগ দেওয়া এবং কিছুদিন পর পুরোনো দলে ফিরে যাওয়া নিয়ে রাজ্য বিজেপির অন্দরে যথেষ্ট বিতর্কের সৃষ্টি হয়। বিষয়টি দিল্লির নজরে আসে। এর পরই সর্বভারতীয় নেতৃত্ব বঙ্গ-বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষকে এই যোগদান-পর্বের বিশেষ দায়িত্ব দেয়। দিলীপবাবুকে এড়িয়ে আর কোন লোকই বিজেপিতে যোগ দিতে পারবেন না।
এ বিষয়ে একাধিক নতুন শর্ত বা বিধি লাগু করা হচ্ছে। এই সব বিধি মানলে অন্য দল থেকে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার সুযোগ মিলবে। গোটা বিষয় তদাকরির দায়িত্ব দিলীপ ঘোষের। তিনি প্রয়োজন হলে দলের কারোর সাহায্য নিতে পারবেন।তবে অনেকেই বলছেন, মুকুলের দায়ভার খানিক হালকা করে দিলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতারা।তাই মুকুলের দলবদলের খেলায় এবার প্রধান ভূমিকা নেবেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

Spread the love