অফবীট করোনা দেশ প্রথম পাতা

করোনা আতঙ্কে এ বার গলায় ফাঁস দিলেন বছর আটত্রিশের মহিলা আধিকারিক ।

পঞ্জাবের অমৃতসরের পর, অরুণাচল প্রদেশের ইটানগর। করোনা আতঙ্কে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আবারও আত্মহত্যার ঘটনা ঘটে গেল। প্রৌঢ় দম্পতির পর এ বার আত্মঘাতী হলেন বছর আটত্রিশের এক মহিলা আধিকারিক। চারপাশে করোনা যে তাঁর মনের উপর অত্যন্ত চাপ সৃষ্টি করেছিল, সুইসাইড নোটে তিনি লিখে গিয়েছেন।
ইটানগর পুলিশ সূত্রে খবর, করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব যেমন ভাবে দেখা যাচ্ছে, তা আশঙ্কিত হয়ে পড়েছিলেন ওই মহিলা। তার জেরেই আত্মহননের পথ বেছে নেন। মহিলার বাড়ির চানঘর থেকে পুলিশ একটি অসমাপ্ত ইস্তফাপত্রও পেয়েছে। বাথরুমেই তিনি গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন। চিঠিতে লেখা যে হারে কোভিড-১৯ সারা পৃথিবীতে ছড়িয়ে পড়েছে, তাতে তিনি অত্যন্ত আশঙ্কিত। দিনের পর দিন করোনার চাপ নিতে না পেরেই তিনি আত্মহত্যার পথ বেছে নিতে বাধ্য হয়েছেন।
শরীরে না হোক, মনের কোনায় করোনা যে বাসা বেঁধেছে, এই আত্মহত্যা ফের তা প্রমাণ করল। লকডাউনে ঘরবন্দি থেকেও সারাক্ষণ সংক্রমণের ভয়। হাঁচতে-কাশতে ভয়। সর্বক্ষণ এই ভয়ের বাতাবরণে থেকে শুক্রবারই আত্মহত্যা করেন অমৃতসরের এক প্রৌঢ় দম্পতি।
সাথিয়াললা গ্রামের বাড়ি থেকে শুক্রবার ওই দম্পতির দেহ উদ্ধার হয়। পুলিশ জানিয়েছে, বলবিন্দর সিং (৫৭) ও গুরজিন্দর কৌর (৫৫) ধরেই নিয়েছিলেন তাঁরা করোনায় আক্রান্ত। সুইসাইড নোটে তাঁরা লেখেন, করোনাভাইরাসের কারণে নিজেদের জীবন তাঁরা শেষ করে দিচ্ছেন। এই মৃত্যুর পিছনে কারও প্ররোচনা নেই। ডিএসপি জানান, মৃত দম্পতির পরীক্ষায় করোনা সংক্রমণের প্রমাণ মেলেনি।

Spread the love