আজকের সারাদিন কলকাতা প্রথম পাতা

সাংবাদিকদের জন্য রুবিতে ৩ কাঠা ও রাজারহাটে ১০ কাঠা জমি বরাদ্দ ঘোষণা করলেন ।

নিজস্ব প্রতিনিধি : কলকাতা প্রেস ক্লাবের সদস্যদের জন্যে সুখবর। আজ প্রেস ক্লাবের জন্য জমি এবং স্থায়ী বাসস্থান তৈরির করা হবে বলে জমি দেওয়ার কথা ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি জানিয়েছেন, পুর ও নগরোয়ন্নন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের সঙ্গে গিয়ে জমি দেখে আসতে পারেন প্রেস ক্লাবের সদস্যরা। পছন্দ হলে জমিটি প্রেস ক্লাবকে দিয়ে দেবে সরকার। শুধু তাই নয়, দুঃস্থ সাংবাদিকদের জন্য রাজারহাটে কো-অপারেটিভ গড়ে ফ্ল্যাট তৈরিরও প্রস্তাব দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এদিন প্রেস ক্লাবের ৭৫ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানে আসেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানেই সাংবাদিকদের উদ্দেশে এ কথা জানান তিনি। তবে তিনি নিউস পোর্টালের সাংবাদিকদের জন্যে আজ কোন কথায় বললেন নি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, কলকাতা প্রেস ক্লাব যে হেতু ময়দানে সেনাবাহিনীর জায়গায়, সে হেতু পাকা কনস্ট্রাকশন করা যায় না। তাই প্রেস ক্লাবের একটি পাকাপাকি ভবন তৈরির জন্য দক্ষিণ কলকাতায় রুবির হাসপাতেলের কাছে সাড়ে ৩ কাঠার জমি বরাদ্দ করেছে কেএমডিএ। প্রেস ক্লাবের সদস্যরা রাজি থাকলে ভবন তৈরির পরবর্তী কাজ শুরু করা যাবে। নেত্রী জানিয়েছেন, নতুন ভবন তৈরিতে সাহায্য করবে পুর ও নগর উন্নয়ন দফতর।

পাশাপাশি সাংবাদিকদের আবাসনের জন্য রাজারহাটে  ১০ কাঠা জমি দেওয়ার কথাও জানান তিনি। এই আবাসন হবে কেএমডি-এর জমিতে। সমবায় পদ্ধতিতে তৈরি হবে আবাসন। লোন দেবে কেএমডিএ। সাংবাদিকদের মাভৈ স্কিমে যুক্ত করা থেকে পেনশন চালু করার কথা তুলে ধরে মমতা এ দিন বোঝাতে চান, তাঁর সরকার কী ভাবে সাংবাদিকদের পাশে রয়েছে। চিত্র সাংবাদিকরাও যাতে প্রেস ক্লাবের পূর্ণ সদস্যপদ পায়, কর্তৃপক্ষের কাছে সেই অনুরোধও রাখেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, “মনে রাখবেন চিত্র সাংবাদিকরাও কিন্তু জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করেন।”

এখানেই শেষ নয়। এতদিন সাংবাদিকরাই প্রেসক্লাবের সদস্যপদ পেতেন, মাভৈ প্রকল্পের সুবিধা পেতেন (চিকিৎসায় সরকারি প্রকল্প)।

এ দিনের অনুষ্ঠানে সাংবাদিকতার সে কাল এ কাল নিয়েও নিজের কথা বলেন মমতা। তাঁর কথায়, “আগে খবর সংগ্রহ অনেক পরিশ্রমের কাজ ছিল। এখন অনেক ইজি। ফেসবুক, টুইটার থেকেই খবর হয়ে যায়। হাজরায় মার খাওয়ার পর থেকে আমার রাতে ঘুম হয় না ঠিক করে । তাই মোবাইল আমি সারা রাত দেখি। তাই যখন আমার মাথায় কিছু আসে আমি তখনই এসএমএস করে দিই। তবে আপনাদের বলে দিই, রাতের বেলায় দেখতে হবে না। পরের দিন সকালে উঠে দেখলেই হবে। আর কিছু জানিয়ে দেবেন আমাকে”

Spread the love