কলকাতা জেলা প্রথম পাতা

Breaking: সল্টলেকের ক্লাবে গোলাগুলি কি সব্যসাচী বনাম সুজিতের গোষ্ঠী সংঘর্ষের ফল?

নিজস্ব প্রতিনিধি : মুকুল রায় শুক্রবার রাতে সব্যসাচী দত্তের বাড়ি যাওযার বিষয়টি ভালোভাবে নেয় নি তৃণমূল। ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপ্যাধ্যায়। সেই তিনি শনিবার নির্দেশ দিয়েছেন বিধাননগরের সব কাউন্সিলরদের নিয়ে রবিবারই শ্রীভূমি স্পোর্টিংয়ে মিটিং করবেন। আর এর মধ্যেই শনিবার রাতে গোলাগুলি চলল সল্টলেকের মহিষবাথানের মিনতি সংঘে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে দশ রাউন্ড গুলি চলেছে। আহত হয়েছেন পাঁচ জন। সব্যসাচীর অনুগামী বলে পরিচিত বিধাননগরের কাউন্সিলর ক্ষিতীশ মণ্ডলের উপর চড়াও হওয়ার অভিযোগ উঠেছে সুজিত-ঘনিষ্ঠ কাউন্সিলর জয়দেব নস্করের বিরুদ্ধে। তৃণমূলের একাংশের মতে, ওই ক্লাবটি সব্যসাচী অনুগামীরাই চালান। মধ্যরাত পর্যন্ত গ্রেফতারির কোনও খবর নেই।

বিধাননগরের বিধায়ক তথা দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু এবং সব্যসাচীর গোষ্ঠী কোন্দলের কারণেই এই ঘটনা ঘটেছে, অনেকে মনে করছেন। মুকুল রায় সব্যসাচীর সঙ্গে দেখা করার পরই তৃণমূল মাথার উপর থেকে হাত সরাতে শুরু করে দিয়েছে। তাঁদের কথায়, এই আশঙ্কা ছিলই। শনিবার তাই সত্যি হলো। প্রসঙ্গত, রাজারহাট ও নিউটাউনের দখল নিয়ে সুজিত-সব্যসাচী-কাকলি ঘোষদস্তিদার-তাপস চ্যাটার্জীদের লড়াই সারা বছরই লেগে থাকে । পর্যবেক্ষকদের মতে, দলের সঙ্গে সব্যসাচীর দূরত্ব বাড়তেই ময়দানে নেমে পড়েছে সুজিত গোষ্ঠী। এখন দেখার রবিবার শ্রীভূমি থেকে সব্যসাচীর বিরুদ্ধে বড় কোনও সিদ্ধান্ত নেন কি না মমতা।

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।