কলকাতা প্রথম পাতা

বর্ডার পেরিয়ে মশা এরাজ্যে ঢুকতে পারে! ডেঙ্গি সর্তকতার মাঝেই রাজ্যে নতুন ১০ হাজার কর্মসংস্থানের কথা শোনালেন মুখ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিনিধি:  বৃহস্পতিবার নজরুল মঞ্চে ‘সবুজ বাঁচাও সবুজ জাগাও, সবুজের মাঝে পরিবেশ বাঁচাও’  অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে তিনি বলেন, “ববি (ফিরহাদ হাকিম) বলছিল বাংলাদেশে ডেঙ্গি হচ্ছে। আমাদেরও কিন্তু সতর্ক হতে হবে।” এরপর কী ভাবে মশা সীমানা পেরিয়ে কামড়ে দিতে পারে সে কথা বলেন মমতা। তাঁর কথায়, “বাংলাদেশ আর আমাদের এক বর্ডার। সেখান দিয়ে মশা ঢুকতে পারে। বাংলাদেশে কামড় দিয়ে মশা ভারতে চলে আসতে পারে আবার এখানে কামড়ে ওখানে চলে যেতে পারে। দূষণ নিয়েও যথেষ্ট চিন্তিত মুখ্যমন্ত্রী। এ দিনের অনুষ্ঠান থেকে দূষণ রুখতে একাধিক কর্মসূচি ঘোষণা করেন তিনি। বলেন, “উত্তরবঙ্গে বৃষ্টি হচ্ছে, দক্ষিণবঙ্গে নেই। এই যে জলোছ্বাস, ফণী,  সুনামি— এ  সবটাই দূষণের জন্য।” শব্দ দূষণ রুখতে অ্যাম্বুলেন্সের হর্ন নিয়ন্ত্রণ করার কথা বলেন মমতা। তাঁর কথায়, “একটা অ্যাম্বুলেন্স আওয়াজ করে ৪০০-৫০০ ডেসিবল। এটাকে ৬০-এ বেঁধে দেওয়া হোক।  অ্যাম্বুলেন্স নিশচয়ই হর্ন বাজাবে। কিন্তু এরা তো দেখি ইচ্ছে মতো বাজায়। দমকলের থেকে বেশি বাজায়। অনেক সময়ে রোগী থাকে না, তা-ও দেখি হর্ন বাজাচ্ছে। তবে এই মঞ্চ থেকে তাৎপর্যপূর্নভাবে, রাজ্যের তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে নতুন কর্মসংস্থানের কথা ঘোষণা করলেন তিনি।এদিন মমতা বলেন,’আপনাদের একটা সুখবর দিই। রাজ্যে আসছে উইপ্রো। ৫০ একর জমি দেওয়া হয়েছে তাদের। ১০ হাজার যুবক-যুবতী কাজ পাবে। ১০০ একর জমিতে ইতিমধ্যেই গড়ে তোলা হয়েছে সিলিকনভ্যালি।  তিনি আরো বলেন, মাইক্রোসফটও আসছে। রাজ্যে ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম তৈরি করবে তারা। প্রজেক্ট সঙ্গম ও প্রজেক্ট ই-ওয়েব মূলত জনকল্যাণমূলক। ৬ লক্ষ তাঁতিকে সংযুক্ত করবে তারা। ২৫ শতাংশ আয় বাড়বে তাঁদের। নদিয়ায় থেকে কাজ শুরু করবে মাইক্রোসফট।

 

Spread the love