জেলা প্রথম পাতা রাজ্যের খবর

বিধাননগরের আস্থা নেই, সব্যসাচীর বিরুদ্ধে সই করলেন ৩৫ কাউন্সিলর! হাতে কাগজ পেলেই নতুন হিসাব কষবেন বিধাননগরের মেয়র

নিজস্ব প্রতিনিধি: বিধাননগরের মেয়র সব্যসাচী দত্তর বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব জমা পড়ল মঙ্গলবার দুপুরে। ৩৫ জন কাউন্সিলর সেই প্রস্তাবে সই করেছেন বলে জানিয়েছেন কর্পোরেশনের চেয়ার পার্সন কৃষ্ণা চক্রবর্তী। ৩৫ জন কাউন্সিলরের সই করা অনাস্থা প্রস্তাব কৃষ্ণাদেবী জমা দেন কর্পোরেশনের যুগ্ম কমিশনারকে। আগামী কাল বিধাননগরের বোর্ড মিটিং রয়েছে। কিন্তু সেখানে এই অনাস্থা প্রস্তাব আনা হবে না বলেই জানিয়েছেন কৃষ্ণাদেবী। পুর আইন ব্যাখ্যা করে তিনি বলেন, “চিঠি জমা দেওয়ার পর অন্তত সাত দিন পর বোর্ড মিটিং করতে হয়। পরবর্তী যে প্রক্রিয়া তা কমিশনার এবং যুগ্ম কমিশনার করবেন।”নিয়ম অনুযায়ী ৭ থেকে ১৫ দিনের মধ্যেই একটি বোর্ড মিটিং ডেকে ভোটের দিন ঠিক করা হবে৷ বিধাননগর পুরসভার চেয়ারপার্সন কৃষ্ণা চক্রবর্তী জানান, অনাস্থা প্রস্তাবের চিঠি পেয়েছি ৷ এবার নিয়ম মেনেই সব কাজ এগিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে৷ আমি দলের একজন সৈনিক৷ দলের নির্দেশ অনুযায়ী কাজ করব৷

বিধাননগর পুরসভায় মোট ৪১ জন কাউন্সিলরের মধ্যে রয়েছেন সিপিএম কাউন্সিলর ১ জন ও কংগ্রেস কাউন্সিলর ১ জন। সব্যসাচীসহ ৩৯ জন তৃণমূল কাউন্সিলর রয়েছে৷ পুরসভার চেয়ারপার্সন কৃষ্ণা চক্রবর্তী আরও জানান, মেয়র এর বিরুদ্ধে অনাস্থা চিঠিতে ৩৫ জন কাউন্সিলর সই করেছেন৷ অনাস্থা আনতে এক -তৃতীয়াংশ সমর্থন লাগে৷ সেই হিসেব অনুযায়ী তৃণমূলের এক-তৃতীয়াংশের বেশি সমর্থন রয়েছে। ফলে সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা মেয়র সব্যসাচীকে পরাজিত করার৷একদিকে যখন চেয়ার পার্সনের ঘরে বসে অনাস্থা চিঠি জমা দেওয়ার তোড়জোড় চলছে, তখন মেয়রের চেম্বারে বসে সাংবাদিক সম্মেলন করে সব্যসাচী দত্ত বললেন, “আগে চিঠি আসুক তারপর দেখা যাবে। যা হবে পুর আইন অনুযায়ী। তার একটুও এ দিক ও দিক হবে না।”

 

 

 

Spread the love

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।