অফবীট কলকাতা প্রথম পাতা

বিধাননগরে মোট ৫০ হাজার মানুষের কাছে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেওয়ার টার্গেট রয়েছে: সুজিত বসু

নিজস্ব সংবাদদাতা, বিধাননগর, ১ এপ্রিল: করোনা মোকাবিলায় সাধারণ মানুষ যাতে অনাহারে না থাকে সেই কারণে বুধবার বিধাননগর বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক তথা রাজ্যের দমকল মন্ত্রী সুজিত বসুর তরফে বিধাননগরের মোট ১৪ টা ওয়ার্ড মিলিয়ে প্রায় ৭ হাজার মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়া হল নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী। এদিন সল্টলেকের দিশারী ভবনে মন্ত্রী সুজিত বসু জানান, “লকডাউন হওয়ার কারণে মানুষজন বাইরে সেভাবে বেরোতে পারছেন না। সেই কারণে গত সাতদিন ধরে আমরা বিধাননগরের বিভিন্ন ওয়ার্ডে গরিব মানুষদের কাছে খাদ্য সামগ্রী বিলি করছি। এখনো পর্যন্ত মোট ১৫ হাজার মানুষের কাছে আমরা খাদ্য সামগ্রী বিলি করতে পেরেছি। আগামী দিনেও আমরা গরিব মানুষের হাতে এই সমস্ত চাল, ডাল, আলু ইত্যাদি নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করব। সব মিলিয়ে দু’দফায় মোট ৫০ হাজার মানুষের কাছে এই খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেওয়ার টার্গেট নেয়া হয়েছে। যার প্রথম দফা হিসাবে আজ ১১৬ বিধাননগর বিধানসভার ১৪ টি ওয়ার্ডের মোট ৭ হাজার মানুষকে এই খাদ্য সামগ্রী তুলে দিচ্ছি।”
এদিন মন্ত্রী আরও জানিয়েছেন, “করোনা সংক্রমণের হাত থেকে বাঁচার জন্য আমরা যত সম্ভব কম লোককে এখানে আসতে বলেছি। শুধুমাত্র ট্রাক ড্রাইভার যারা খাদ্যসামগ্রী বহন করবে এবং প্রতিটি ওয়ার্ডের কয়েকজন করে মেম্বারকে উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে।” তিনি আরও যোগ করে বলেন, “পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যেভাবে রাস্তায় নেমে এই সংকটময় পরিস্থিতির মোকাবিলা করছেন তা থেকেই আমরা অনুপ্রাণিত হয়েছি এবং তাঁর এই ব্যাপক প্রচেষ্টায় কিছু সাহায্য করছি মাত্র।”
অন্যদিকে সল্টলেকের সিজিও কম্প্লেক্সে ধরা পরল অন্য একটি ছবি। সিজিও কম্প্লেক্স এর গোটা বিল্ডিং জুড়ে ও তার আশেপাশের এলাকায় দমকলের পক্ষ থেকে ছড়ানো হল কীটনাশক স্প্রে। জীবাণুমুক্ত করা হল গোটা এলাকা। এই সংকটময় পরিস্থিতিতে দমকলের এই তৎপরতায় খুশি এলাকার মানুষেরাও।

Spread the love