দেশ প্রথম পাতা লগডাউন

আহমেদাবাদের কোয়ারেন্টাইনে আত্মঘাতী বাংলার শ্রমিক ।

মালদহের এক যুবক গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। জানা গেছে, স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে সন্তানদের নিয়ে অশান্তির সৃষ্টি হলে, এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন ওই যুবক। বছর চল্লিশের ওই শ্রমিক স্ত্রী ও দুই সন্তান-সহ স্থানীয় কলেজ ক্যাম্পাসের কোয়ারানটিন কেন্দ্রে ছিলেন। অহমেদাবাদের সোলা থানার পুলিশ প্রাথমিক তদন্তের পর দাবি করে, সন্তানদের নিয়ে স্ত্রীর সঙ্গে মনোমালিন্যের কারণেই বাংলার ওই শ্রমিক আত্মঘাতী হয়েছেন। রবিবার তাঁর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়।আত্মঘাতী শ্রমিকের নাম কমলেশ এস প্রামাণিক। বাড়ি উত্তরবঙ্গের মালদায়। এই ঘটনায় একটি দুর্ঘটনায় মৃত্যুর মামলা রুজু করেছে পুলিশ। অন্য রাজ্যে কাজ করতে গিয়ে করোনায় বিপাকে পরিযায়ী শ্রমিকরা। উপার্জন নেই, ঘরে ফেরার উপায় নেই। কাটছে কোয়ারানটিন কেন্দ্রে। বাড়ছে হতাশা। অসন্তোষ। মনে করা হচ্ছে, মানসিক সেই অশান্তিতেই আত্মঘাতী মালদার পরিযায়ী শ্রমিক।

Spread the love