দক্ষিণবঙ্গ প্রথম পাতা লাইফ স্টাইল

অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ ।

পূর্ণ মাসের অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে কেরোসিন তেল ঢেলে পুড়িয়ে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ উঠল শ্বশুরবাড়ির সদস্যদের বিরুদ্ধে। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা কাঁথি থানার চালতি এলাকায়।ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে কাঁথি মহিলা থানার পুলিশ। জানা গেছে গত দেড় বছর আগে গ্রামের এক যুবতীর সঙ্গে প্রেম করে বিয়ে হয় আব্দুল মজিদের। বিয়ের আগে আব্দুল কেরালায় রাজমিস্ত্রি কাজ করতো। এরপর বাড়ির পাশে রাজমিস্ত্রি কাজ করতো।কিন্তু দুজনের বিয়ে দুই পরিবার কোন মতেই মেনে নেয়নি। দুজনই বাড়িতে আলাদা হয়ে থাকতো। এনিয়ে আব্দুলের পরিবারের লোকেরা স্ত্রী উপর শারিরিক ও মানসিক অত্যাচার করতো।
সোমবার বিকালে আবদুল একটুকু বাড়ির বাইরে বেরিয়ে যায়। গৃহবধু রীনা বিবি (২০) একা পেয়ে শ্বাশুড়ি সহ পরিবারের লোকেরা কেরেসিন তেল ঢেলে আঙ্গুন লাগিয়ে দেয় বলে অভিযোগ। গৃহবধূর চিৎকার শুনে স্বামী আবদুল করে কোন রকমের আঙ্গন নেবান।আঙ্গুন নেবাতে গিয়ে আহত হয় স্বামী। প্রতিবেশীদের সহযোগিতার উদ্ধার করে কাঁথি হাসপাতালের নিয়ে আসে।
অগ্নিদদ্ধা অন্তঃসও্বা রীনা বিবি স্বামী সেক আবদুল মজিত বলেন আমরা দুইজন প্রেম করে বিয়ে করেছিলাম। এরপর থেকে বাড়িতে ঝামেলা হতো।শ্বশুরবাড়ি থেকে এখনো আমাদের কোন সম্পর্ক মেনে নেয়নি। তাই কোন পন দেয়নি শ্বশুরবাড়ি থেকে। আমি বাড়িতে না থাকলে স্ত্রীকে মারধর করলো মা, মাসি ও তার মেয়ে সহ পরিবারের বাকী সদস্যরা।সোমবার বিকালে আমি বাড়িতে না থাকলে স্ত্রী সঙ্গে ঝামেলা হয়। কেউ একজন আমার স্ত্রীকে কেরেসিন তেল ঢেলে আঙ্গুন লাগিয়ে দিয়েছে।স্ত্রী আঙ্গুনে জ্বলছে আর সবাই দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে দেখছে।ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে কাঁথি মহিলা থানার পুলিশ। অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ।

Spread the love