aamar sakal: Minister directs Tantuja and Bangashree to create excessive masks to prevent Corona panic
জেলা প্রথম পাতা রাজ্যের খবর

আমার সকাল: করোনার আতঙ্ক ঠেকাতে তন্তুজ ও বঙ্গশ্রীকে চাহিদার বেশি মাস্ক তৈরীর নির্দেশ মন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিনিধি: বিশ্বের কাছে এখন আতঙ্কের আরেক নাম করোনা। মারাত্মক এই ভাইরাসের থাবায় কার্যত নাজেহাল অবস্থা বিশ্বের শক্তিশালী একাধিক দেশের।ভারতেও থাবা বসিয়েছে করোনা ভাইরাস। বাংলাতেও তেমনভাবে ভয়াবহ আকার ধারন না করলেও করোনার আতঙ্কে রীতিমত ঘুম উড়েছে রাজ্যবাসীর। সাধারন মানুষের মুখ ঢেকেছে মাস্কে। আর চিকিৎসকদের পরামর্শমত মাস্ক ব্যবহারের ফলেই বাজারে আকাল দেখা গিয়েছে মারাত্মক করোনা ভাইরাস রোখার প্রথম পদক্ষেপেই।তবে রাজ্য সরকার বদ্ধপরিকর যাতে রাজ্যের সব মানুষের মুখে মাস্ক তুলে দিতে পারে।

একাধিকবার মাস্কের কালোবাজারি রুখতে কড়া পদক্ষেপের কথা বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেইমত মাস্কের কালোবাজারি ঠেকাতে বিভিন্ন দোকানে অভিযান চালাচ্ছে কলকাতা পুলিশের বিশেষ বাহিনী। বাজারে জোগান স্বাভাবিক রাখতে এবার সরকারি সংস্থাকে মাস্ক তৈরির নির্দেশ দিলেন রাজ্যের ক্ষুদ্র, ছোট ও মাঝারি শিল্প দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ। সরকারি দুই সংস্থা তন্তুজ ও বঙ্গশ্রীকে দেড় লক্ষ মাস্ক তৈরির নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

রাজ্য সরকারের অধীনস্ত বঙ্গশ্রীর তৈরির মাস্ক চলতি সপ্তাহেই এসে যাবে বলে জানিয়েছেন স্বপনবাবু। পাশাপাশি, তন্তুজের মাস্কও সামনের সপ্তাহের গোড়ায় এসে যাবে বলে তিনি আশা করছেন। প্রয়োজন অনুযায়ী, তন্তুজ আরও বেশি পরিমাণ মাস্কের জোগান দেবে বলে জানান মন্ত্রী।

স্বপনবাবু বলেন, “করোনা নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। সাবধানতা প্রয়োজন। তার জন্য মাস্ক ব্যবহার করা উচিৎ। বাজারে জোগান কম রয়েছে। তার জন্য বঙ্গশ্রীকে আগেই ৫০ হাজার মাস্ক তৈরি করতে বলেছিলাম। তন্তুজওকে ১ লক্ষ মাস্ক তৈরির জন্য বলা হয়েছে।” মাস্কগুলি যাতে করোনা ভাইরাস রুখতে সক্ষম হয় সেদিকে গুরুত্ব দিতে বলা হয়েছে প্রস্তুতকারী দুই সংস্থাকে।

 

 

Spread the love